মেক্সিকোর সীমান্ত পরিদর্শনে যাচ্ছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প

আমেরিকা

মেক্সিকোর সীমান্ত পরিদর্শনে যাচ্ছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প মেক্সিকো সীমান্ত পরিদর্শনে যাচেছন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। সেই সঙ্গে   দেয়াল নির্মাণের বিষয়টি নিয়ে জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিবেন বলেও জানিয়েছেন  প্রেসিডেন্ট  ট্রাম্প। সোমবার এক টুইট বার্তায় এমনটি জানিয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প । খবর রয়টার্সের।

রয়টার্সের প্রতিবেদনে বলা হয়, ট্রাম্পের ভাষণ যুক্তরাষ্টের স্থানীয় সময় মঙ্গলবার রাত ৯টায়  প্রচার করা হবে এবং বৃহস্পতিবার ট্রাম্পের মেক্সিকো পরিদর্শনের কথা রয়েছে।

 সীমান্ত দেয়াল নির্মাণ ইস্যুতে দুই যুক্তরাষ্ট্র সরকারে চলা আংশিক অচলাবস্থার ১৭ দিনের মাথায় ট্রাম্পের পক্ষ থেকে এমন ঘোষণা দিলেন ট্রাম্প । ট্রাম্পের এই ঘোষণার মধ্য দিয়ে প্রতীয়মান হয় যে, ডেমোক্র্যাটিক পার্টি নিয়ন্ত্রিত কংগ্রেস দেয়াল নির্মাণে তহবিল বরাদ্দ দিতে না চাইলেও এ ইস্যুতে এখনও পর্যন্ত অনড় অবস্থানে রয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। কেননা তিনি মনে করেন, এ দেয়াল নির্মাণের মাধ্যমে মেক্সিকো থেকে যুক্তরাষ্ট্রে অবৈধ অভিবাসীদের অনুপ্রবেশ বন্ধ করা সম্ভব হবে। একইসঙ্গে সীমান্ত এলাকা দিয়ে মাদক পাচারেরও রাশ টেনে ধরা সম্ভব হবে। তবে ডেমোক্র্যাটিক পার্টির সদস্যরা মনে করেন বিশাল সীমান্তজুড়ে এই দেয়াল নির্মাণ খুবই ব্যয়বহুল এবং একইসঙ্গে এটি একটি অনৈতিক পদক্ষেপ।

এর আগে কংগ্রেসের ডেমোক্র্যাট প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠকের পর ট্রাম্প বলেন, যতক্ষণ পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্রের কংগ্রেস মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের অর্থ না দিচ্ছে ততক্ষণ সরকারে অচলাবস্থা বিদ্যমান থাকবে। এই অচলাবস্থা মাসের পর মাস এমনকি প্রয়োজনে বছরের পর বছর ধরে চলবে।

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ করতে ৫৬০ কোটি ডলারের তহবিল বরাদ্দ করতে কংগ্রেসের প্রতি জোর দাবি জানিয়েছেন ট্রাম্প। সন্ত্রাসবাদ ঠেকাতে মেক্সিকো সীমান্ত পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়া প্রয়োজন বলে দাবি করেন তিনি।

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণের জন্য প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের চাওয়া অর্থ বরাদ্দ না রেখেই সম্প্রতি মার্কিন প্রতিনিধি পরিষদে একটি বিল পাস হয়েছে। দুই সপ্তাহ সরকারে চলা আংশিক অচলাবস্থার নিরসনে ৩ জানুয়ারি ছয়টি বিল পাস করেছে মার্কিন কংগ্রেসের নিম্নকক্ষ প্রতিনিধি পরিষদ। প্রতিনিধি পরিষদে ডেমোক্র্যাটদের সংখ্যাগরিষ্ঠতার জেরে বিলটি পাস হয়ে গেলেও তা সিনেটে বাধার মুখে পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। সেখানে রিপাবলিকান সিনেটররা এখনও সংখ্যাগরিষ্ঠ। তাছাড়া সীমান্ত দেয়াল নির্মাণে বরাদ্দ পাওয়া ছাড়া বিলটি অনুমোদন না করার হুমকি দিয়ে রেখেছেন ট্রাম্পও। সব মিলে শাটডাউন নিরসন প্রশ্নে অনিশ্চয়তা এখনও কাটছে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *