যুক্তরাষ্ট্র নয় রাশিয়ার ত্রাণ গ্রহণ করল ভেনেজুয়েলা

আমেরিকা

(কারাকাস, ভেনিজুয়েলা) যুক্তরাষ্ট্রের পাঠানো ত্রাণ সীমান্তে আটকে রাখলেও রাশিয়ার পাঠানো ত্রাণ গ্রহণ করে ভেনিজুয়েলা। খাদ্য ও ওষুধ মিলিয়ে ৩০০ টন রুশ ত্রাণ বুধবার কারাকাস বিমানবন্দরে এসে পৌছায়। অবশ্য ত্রাণে খবর আগেই জানিয়েছিলেন দেশটির প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় সংবাদ সংস্থা আরআইএ নভোস্তির বরাত এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

এদিকে ভেনিজুয়েলায় ‘একটি অবাধ ও বিশ্বাসযোগ্য’ প্রেসিডেন্ট নির্বাচন আয়োজন ও মানবিক ত্রাণ প্রবেশাধিরের আহŸান সম্বলিত একটি প্রস্তাব জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদে উত্থাপন করেছে যুক্তরাষ্ট্র। বৃহস্পতিবার প্রস্তাবটি ভোটাভুটি হওয়ার কথা রয়েছে। রাশিয়া প্রস্তাবটিতে ভেটো দিতে পারে বলে মনে করা হচ্ছে।

ভেনিজুয়েলার সাম্প্রতিক রাজনৈতিক সংকটে মাদুরোর সরকারের পক্ষ নিয়েছে রাশিয়া। ক‚টনৈতিক সমর্থন থেকে সব ধরনের সহযোগিতা দিয়ে যাচ্ছে মস্কো। তারই ধারাবাহিকতায় দারিদ্রপীড়িত দেশটির জন্য বিশাল পরিমাণ ত্রাণ পাঠাল রুশ কর্তৃপক্ষ।

ত্রাণ ইস্যুতে বিরোধ

সম্প্রতি রাজনৈতিক সংকটকে কেন্দ্র করে ত্রাণ নিয়ে দেখা দেয় চরম বিরোধ। স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হোয়ান গুইদো ভেনেজুয়েলায় মার্কিন ত্রাণের প্রবেশাধিকার চান। মাদুরো বলেছেন, ভেনেজুয়েলা ভিক্ষুক নয় যে মার্কিন ত্রাণ গ্রহণ করবে। যুক্তরাষ্ট্রসহ তার পশ্চিমা মিত্ররা মনে করে, আন্তর্জাতিক ত্রাণ গুইদোর মাধ্যমে ভেনেজুয়েলায় বিতরণ করা সম্ভব হলে তা মাদুরোর ভাবমূর্তিকে দেশবাসীর সামনে ম্লান করে দিতে সক্ষম হবে।

যুক্তরাষ্ট্র জানিয়েছে, দেশটি একাই ২ কোটি ডলারের ত্রাণ ভেনেজুয়েলার জন্য পাঠিয়েছে। সীমান্তে হাজার হাজার টন ত্রাণ বোঝাই ট্রাক অপেক্ষমাণ। দেশের সম্মানহানির আশঙ্কায় কোনোভাবেই সেগুলোকে ঢুকতে দিতে রাজি নয় মাদুরো সরকার। এ নিয়ে বিরোধী কর্মী সমর্থক ও ভেনেজুয়েলার নিরাপত্তারক্ষীদের সংঘর্ষ হয়েছে। কিন্তু রাজনৈতিকভাবে রাশিয়ার সমর্থন পাওয়া ভেনেজুয়েলা গ্রহণ করছে রাশিয়ার পাঠানো ত্রাণ।

ভেনেজুয়েলাতে ‘বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার’ (হু) সঙ্গে কাজ করা সংগঠন ‘প্যান আমেরিকান হেলথ অর্গানাইজেশন’ নিশ্চিত করেছে, ভেনেজুয়েলাতে রুশ ত্রাণ পৌঁছানোর কথা। তাদের দেয়া তথ্য অনুযায়ী, গত ২১ ফেব্রুয়ারি রাশিয়ার পাঠানো সাত দশমিক পাঁচ টন চিকিৎসা সামগ্রী ও ওষুধ গেছে ভেনেজুয়েলাতে।

এর আগেও ত্রাণ পাঠিয়েছে রাশিয়া

একই রকম আরেকটি চালান পাঠানো হয়েছিল ২০১৮ সালের এপ্রিল মাসে। গত বছর সব মিলিয়ে রাশিয়ার কাছ থেকে ৫০ টনের মতো চিকিৎসা সরঞ্জাম ও ওষুধ পেয়েছে ভেনেজুয়েলা। আর এসব ত্রাণ তত্ত্বাবধান করেছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা। তবে শুধু রাশিয়ায় নয়, জাতিসংঘের সংস্থা ও নরওয়ের সংস্থার কাছ থেকে ভেনেজুয়েলা গত বছর ত্রাণ সহায়তা গ্রহণ করেছে।

জাতিসংঘের ‘ফিন্যান্সিয়াল ট্র্যাকিং সার্ভিস’ জানিয়েছে, শুধুমাত্র ২০১৮ সালেই দুই কোটি ৪০ লাখ ডলারের ত্রাণ পেয়েছে ভেনেজুয়েলা। এদের মধ্যে যেমন আছে হুয়ের অর্থ তেমনি আছে ‘নরওয়েজিয়ান রিফিউজি কাউন্সিলের’ সহায়তা। এ বছর এখন পর্যন্ত ভেনেজুয়েলাতে কাজ করা জাতিসংঘের সংস্থাগুলোর জন্য দেড় কোটি ডলারের বাজেট বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *