পাকিস্তানে বিমান হামলায় ২ হাজার ৬১৪ কোটি রুপি খরচ ভারতের

ভারত

(নয়াদিল্লি, ভারত) পাকিস্তানের অভ্যন্তরে ভারতের চালানো সার্জিক্যাল স্ট্রাইকে খরচ হয়েছে ২ হাজার ৬১৪ কোটি রুপি। বিমান বাহিনীর এ অভিযানে প্রয়োজনে ব্যবহারের জন্য আরও ৩ হাজার ৬৮৬ কোটি রুপির যুদ্ধ সরঞ্জাম প্রস্তুত রাখা হয়। এসব যুদ্ধাস্ত্র বিমান হামলা ব্যর্থ হলে অথবা পাকিস্তানের পাল্টা হামলার জবাব দেয়ার জন্য ব্যবহার করার সিদ্ধান্ত ছিল।

২১ মিনিটের ওই অভিযানে ১ হাজার কেজি ওজনের পাঁচ থেকে ছয়টি লেজার গাইডেড বোমা পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের বালাকোট, মুজাফফরাবাদ, চোকথি-এই তিন জায়গায় ফেলা হয়। প্রতিটি বোমার দাম ৫৬ লাখ রুপি। ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইন্ডিয়া টুডের শুক্রবারের এক প্রতিবেদনে এসব তথ্য জানানো হয়েছে।

মঙ্গলবার ভোরে লাইন অব কন্ট্রোল পেরিয়ে পাকিস্তানের অন্তত ৮০ কিলোমিটার অভ্যন্তরে ঢুকে হামলা করে ভারতীয় বিমানবাহিনীর ছয়টি বিমান। এতে জঙ্গি গোষ্ঠী জইশ-ই-মোহাম্মদের সবচেয়ে ঘাটি ধ্বংস হয়েছে বলে নয়াদিলি­ দাবি করলেও আলজাজিরা জানিয়েছে, তেমন কোনো ক্ষয়ক্ষতি হয়নি। কোনো জঙ্গি ঘাটিতে নয়, বালাকোটের পাহাড়ি এলাকায় ফাকা বোমা হামলা করেছে ভারত।

খবরে বলা হয়, অভিযানে যেসব সম্পদ ব্যবহার করা হয়েছে তার আর্থিক মূল্য প্রায় সাড়ে ছয় হাজার কোটি রুপি। অভিযান চলাকালে পাকিস্তানের আকাশসীমায় নজরদারি করতে এয়ারবোর্ন ওয়ার্নিং এবং কন্ট্রোলিং সিস্টেম মোতায়েন করা হয়। অভিযানের সময় যন্ত্রের মাধ্যমে একটি বিমানের এ ধরনের কাজে ১ হাজার ৭৫০ কোটি রুপি খরচ হয়। অভিযান চলাকালে কোনো বিমানের জ্বালানি ফুরিয়ে গেলে আকাশেই জ্বালানি ভরার জন্য বিশেষ বিমানের ২২ কোটি রুপি দামের বিশেষ ট্যাংকার তৈরি ছিল। এছাড়া আকাশে নজরদারি চালিয়েছে ৮০ কোটি রুপি মূল্যের ড্রোন।

এছাড়া অভিযান চলাকালীন ভারতীয় বিমান বাহিনীর ঘাঁটিতে তিনটি রাশিয়ান সুখোই সু থার্টি এম কে আই উড়োজাহাজ তৈরি রাখা হয়। এর প্রতিটির দাম ৩৫৮ কোটি রুপি। এ সময় আরও পাঁচটি মিগ-২৯ এস যুদ্ধবিমান প্রস্তুত হয়, যার প্রতিটির দাম ১৫৪ কোটি রুপি। আর অভিযানে অংশ নেয়া ১২টি মিরাজ-২০০০ যুদ্ধবিমানের একেকটির দাম ২১৪ কোটি রুপি। এর বাইরে গোয়ালিয়র এয়ারবেসে আরও বিমানসহ যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি লেজার গাইডেড ২২৫ কেজি জিবিইউ-১২ বোমাও প্রস্তুত রাখা হয়েছিল। এর প্রতিটির দাম ১৪ লাখ রুপি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *