ইউরিয়া সারের অভাব মেটাতে মানুষের মূত্র সঞ্চয়ের আর্জি বিজেপিমন্ত্রীর

ভারত

(নয়াদিল্লি, ভারত) গোটা দেশের মূত্র সংরক্ষণ করলে, ইউরিয়ার জোগান নিয়ে আর ভাবতে হবে না ভারত সরকারকে। কৃষিকাজের উন্নতির জন্য ভারতকে আর দেশের বাইরে থেকে মূল্যবান সার আমদানি করতে হবে না। শুধু মূত্র সঞ্চয় করলেই হবে। এমন অভিনব প্রস্তাব দিয়েছেন ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সরকারের সড়ক ও পরিবহণ মন্ত্রী নিতিন গডকড়ীর।

রোববার মহারাষ্ট্রের নাগপুর পৌর কর্পোরেশনের পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান ‘মেয়র ইনোভেশন অ্যাওয়ার্ডস’ এ তরুণ বিজ্ঞানীদের সামনে বক্তৃতা রাখতে গিয়ে নিতিন বলেন, মানব মূত্র দিয়ে তৈরি করা যেতে পারে বায়ো-জ্বালানি। মূত্র থেকে অফুরন্ত নাইট্রোজেন এবং অ্যামোনিয়াম সালফেট পাওয়া যায়। তার এই অভিনব ভাবনাকে পাত্তা না দেওয়ায় সরকারকেও কাঠগড়ায় দাঁড় করান তিনি। খবর এনডিটিভির।

মাঝে মধ্যেই অভিনব ধারনা ও পরমার্শ নিয়ে হাজির হন বিজেপির এ মন্ত্রী। কিন্তু তার আক্ষেপ, তারা ভাবনার মর্যাদা দেন না কেউ। নিতিন বলেন, ‘আমার ভাবনাগুলো এতটাই অভিনব, কেউ প্রয়োগ করতে চান না।’ এমনকি পৌরসভার অনুষ্ঠানে দাঁড়িয়ে তিনি বলেন, ‘সরকারে থাকায় কোনো কোম্পানি কিংবা কর্পোরেশনও এগিয়ে আসে না। জনগণকে ষাঁড়ের মতো তৈরি করা হয়েছে, যারা গতানুগতিক পথ ছাড়া এ দিক ও দিক তাকিয়ে দেখে না।’ অতীতে গো-মূত্রের প্রয়োজনীয়তার কথা বিজেপির বেশ কয়েকজন নেতা-মন্ত্রীর মুখে শোনা যায়। এবার নিতিন গড়কড়ির এ প্রস্তাবে অনেকেই বিস্ময় প্রকাশ করেছেন।

কয়েক বছর আগেও মূত্র নিয়ে এমনই পরামর্শ দিতে দেখা গিয়েছিল নিতিন গডকড়ীকে। এমনকি নিজের বাড়ির বাগানের মাটি উর্বর করতে নিজেরই মূত্র ব্যবহার করতেন বলে জানান নিতিন। তার আরও দাবি, মানুষের চুল থেকে ভাল জৈব সার তৈরি হয়। নিজের জমিতে চাষের জন্য প্রতি মাসে তিরুপতি থেকে ট্রাকে করে চুল আমদানি করতেন তিনি। এমনকি, ২৫ শতাংশ জমির উর্বরতা বৃদ্ধি করে বলে নিতিন দাবি করেন। মন্ত্রীর কথায়, দুবাই থেকে ইউরিয়া আমদানি করে দেশ। বিমানবন্দরগুলোতে মূত্র সংরক্ষণ করার পরামর্শ দিয়েছি। যদি গোটা দেশে মূত্র সংরক্ষণ করা হয়, তা হলে ইউরিয়া আমদানি করার প্রয়োজন নেই।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *