তিন ঘণ্টা পর ভোটগ্রহণ শুরু কুয়েত মৈত্রী হলে

বাংলাদেশ

(ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়, বাংলাদেশ) ব্যালটে সিল মারার অভিযোগে নির্ধারিত সময়ের তিন ঘণ্টা পর বাংলাদেশ-কুয়েত মৈত্রী হলে ডাকুস নির্বাচনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। সোমবার বেলা ১১ টা ১০ মিনিট থেকে ভোটগ্রহণ শুরু হয়। চলবে ৫টা ১০ মিনিট পর্যন্ত। চিফ রিটার্নিং কর্মকর্তা এস এম মাহফুজুর রহমান এ কথা জানিয়েছেন। খবর বাংলা ট্রিবিউনের।

কুয়েত মেত্রী হলের সামনে উপ-উপাচার্য (প্রো-ভিসি) ড. মুহম্মদ সামাদ সাংবাদিকদের বলেন, ‘স্থগিত থাকা ভোট শুরু হয়েছে। ভোট চলবে বিকাল ৫টা ১০ মিনিট পর্যন্ত। এরপরও যদি ভোটার উপস্থিত থাকে তাহলে নির্ধারিত সময়ের পরও তাদের ভোট নেওয়া হবে।’ তিনি আরও বলেন, ‘প্রভোস্টকে এরই মধ্যে অপসারণ করা হয়েছে। ব্যালটে সিল মারার ঘটনায় তদন্ত কমিটি গঠন করা হবে। দোষীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

চিফ রিটার্নিং কর্মকর্তা এস এম মাহফুজ রহমান হলের সামনে সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষার্থীদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে অভিযুক্ত প্রভোস্ট শবনম জাহানকে অব্যাহতি দেন। এসময় বিক্ষোভ করে শিক্ষার্থীরা হল প্রভোস্টকে অব্যাহতির পরিবর্তে বহিষ্কারের দাবি জানান। তিনি বলেন,  হল প্রভোস্ট শবনম জাহানের বিরুদ্ধে তদন্ত করে পরবর্তী ব্যবস্থা নেওয়া হবে। তিনি সাধারণ ভোটারদের অনুরোধ করে বলেন,  ‘তোমরা ভোটে অংশগ্রহণ করো। তোমাদের দাবির পরিপ্রেক্ষিতে নতুন প্রভোস্টকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।’

নির্বাচন ৩ ঘণ্টা দেরিতে শুরু হওয়ার কারণে তিনি বলেন,  ভোট দেওয়ার সময় সীমা ৩ ঘণ্টা বাড়িয়ে দিয়ে বিকাল ৫টা পর্যন্ত নেওয়া হবে। এসময় কুয়েত মৈত্রী হলের স্বতন্ত্র ভিপি প্রার্থী শিরিন শারমিন বলেন,  ‘আমরা হল প্রভোস্ট শবনম জাহানকে অব্যাহতি নয় বহিষ্কার চাই এবং এই হল থেকে ছাত্রলীগের প্যানেল বাতিল চাই।’

এ বিষয়ে চিফ রিটার্নিং কর্মকর্তা বলেন, এ ঘটনায় তদন্ত কমিটি হবে। কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। প্রার্থী ও ভোটাররা জানান,  ভোট শুরুর আগে থেকে হলের অডিটোরিয়ামে একটি কক্ষ আগে বন্ধ ছিল। সকালে সেই কক্ষ থেকে প্রার্থী ও ভোটাররা এক বস্তা ব্যালট উদ্ধার করে। তাতে  ছাত্রলীগের প্রার্থীদের নামে সিল মারা ছিল। পরে প্রার্থী ও শিক্ষার্থীদের অভিযোগের প্রেক্ষিতে নির্বাচনি কর্মকর্তারা ভোট বন্ধ করে দেন।

জাতীয় সংসদ, উপজেলা বা অন্যান্য নির্বাচনে সাধারণত ব্যালট পেপারে থাকা প্রার্থীর প্রতীকের ওপরে ভোটারকে সিল মারতে হয়। আর ডাকসু নির্বাচনে ব্যালটে প্রার্থীর নামের পাশে ভোটারকে ক্রস (x) চিহ্ন দিতে হয়। প্রসঙ্গত সোমবার সকাল ৮টা থেকে ডাকসু নির্বাচন শুরু হয়েছে। চলবে দুপুর ২টা পর্যন্ত। নির্বাচনে মোট ভোটার ৪২ হাজার ৯২৩ জন। নির্বাচনে চূড়ান্ত প্রার্থী তালিকা অনুসারে ডাকসুর ২৫টি পদের বিপরীতে লড়ছেন ২২৯ জন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *