মসজিদে হামলা: ক্ষতিগ্রস্তদের পাশে তুরস্ক

বিশ্বজগৎ লিড নিউজ

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে খ্রিস্টান সন্ত্রাসবাদী কর্তৃক নামাজরত মুসুল্লিদের উপর বর্বরোচিত হামলার ঘটনায় শহীদ, আহত ও তাদের পরিবারকে সমর্থন জানাতে তাদের কাছে গিয়েছেন তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াদ উকতাই ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু সহ একটি প্রতিনিধিদল।

সোমবার (১৮ মার্চ) তুরস্কের উচ্চপদস্থ কর্মকর্তাগণ হামলার স্থান, হাসপাতাল ও ক্ষতিগ্রস্তদের পরিবারের সাথে দেখা করেন।

তুরস্কের ভাইস প্রেসিডেন্ট ফুয়াদ উকতাই বলেন, সারাবিশ্বে ইসলাম বিদ্বেষ মাত্রাতিরিক্ত ছাড়িয়ে যাচ্ছে। ইসলাম বিদ্বেষীদের বিরুদ্ধে এখনই আওয়াজ তুলতে হবে। সন্ত্রাসবাদীদের কোনো জাতি, ধর্ম নেই। তাদের পৃথিবীতে থাকারও কোনো অধিকার নেই।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত চাভুসওগ্লু বলেন, নিউজিল্যান্ডে খ্রিস্টান সন্ত্রাসবাদী কর্তৃক বর্বরোচিত হামলার ঘটনায় আগামী শুক্রবার তুরস্কে ওআইসির জরুরি বৈঠক ডাকা হয়েছে। আমরা এখানে এসে যা সিদ্ধান্ত নিয়েছি তা হলো একটি কমিটি গঠন করা হবে যারা এর সংকট নিরসনে কাজ করবে।

এক্ষেত্রে আমরা ইউএন সহ সকল প্লাটফর্মগুলোকে একসাথে করবো। আমরা এটাকে ছেড়ে দিতে পারিনা।

এরপর উভয়ে তিন তুর্কী সহ আহতদের দেখতে হাসপাতালে যান। সেখানে তাদের সার্বিক খোঁজ খবর নেন।

এরপর তারা নিউজিল্যান্ডের জেনারেল গভর্নর প্যাটসি রেড্ডির সাথে সাক্ষাৎ করেন। এসময় রেড্ডি বলেন, আমাদের দেশ অনেক শান্ত পরিবেশ সম্পন্ন। এখানে এমন ঘটনা কল্পনাও করা যায়নি।

তাই সন্ত্রাসবাদীরা এটার ফায়দা লুটেছে। এ হামলায় হতাহতদের সর্বোচ্চ সহযোগিতা করবে সরকার। এ হামলা অভিবাসীদের নিরাপত্তায় কোনো বিঘ্ন ঘটবে না।

গতবছর তুরস্ক সফর করেছিলেন রেড্ডি। তিনি তা স্মরণ করে বলেন, তুরস্কের সাথে আমাদের কোনো সমস্যা নেই। প্রেসিডেন্ট এরদোগান খুবই বন্ধুসুলভ। তিনি আমাকে খুবই যত্নের সাথে স্বাগত জানিয়েছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *