মসজিদে গণহত্যাঃ এরদোগানের মন্তব্যের ব্যাখ্যা চান নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

বিশ্বজগৎ লিড্স অব দ্যা ওয়ার্ল্ড

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে দুই মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান যে মন্তব্য করেছেন, তার ব্যাখ্যা জানতে পররাষ্ট্রমন্ত্রী উইনস্টন পিটার্স তুরস্কে যাচ্ছেন বলে জানিয়েছেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী জেসিন্ডা আর্ডার্ন।

পিটার্স বুধবার তুরস্কে গিয়ে এ বিষয়ে জরুরি ভিত্তিতে আঙ্কারার ব্যাখ্যা চাইবেন বলে জানিয়েছেন তিনি। পিটার্স একাধারে নিউজিল্যান্ডের উপপ্রধানমন্ত্রীর দায়িত্বও পালন করছেন।শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের দুই মসজিদে নামাজের সময় নির্বিচারে গুলি চালিয়ে অর্ধশত মানুষকে হত্যার দায়ে শ্বেতাঙ্গ জঙ্গি অস্ট্রেলীয় ব্রেন্টন ট্যারেন্টের (২৮) বিরুদ্ধে নরহত্যার অভিযোগ আনা হয়েছে।

এর আগে মঙ্গলবার এক নির্বাচনী সমাবেশে অংশ নিয়ে তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রিসেপ তাইয়্যিপ এরদোগান বলেছেন, হামলাকারীকে এ ঘটনায় উপযুক্ত মূল্য দেওয়া হবে। যদি নিউজিল্যান্ড কিছু না করে তাহলে অন্য যে কোনো উপায়ে এর মূল্য পরিশোধ করা হবে।ক্রাইস্টচার্চে হামলার সময় জঙ্গি ট্যারেন্ট ফেসবুকে হামলার ঘটনাটি সরাসরি সম্প্রচার করেছিলেন। এরদোগানের ওই নির্বাচনী সমাবেশে সেই ভিডিও ফুটেজটিও দেখানো হয়।

সমাবেশে এরদোগান বলেছেন, এত দূর থাকা সত্ত্বেও সন্ত্রাসীর অস্ত্রে তুরস্কে হামলার কথা স্বীকারোক্তি ছিল। অস্ত্রের ছবিগুলোতে ঐতিহাসিক ব্যক্তিত্বের নাম প্রদর্শন করে, যারা অটোমান সেনাবাহিনীতে যুদ্ধ করেছিল।যদি তুর্কিবিরোধীরা তাদের যে ভয়ংকর পরিকল্পনা আছে, সেগুলোর বাস্তবায়ন করতে চায়; তাহলে আমরাও হাতে চুরি পরে বসে থাকব না। তাদের এমন দৃষ্টান্তমূলক শিক্ষা দেব, যা তাদের আজীবন মনে থাকবে।

ক্রাইস্টচার্চে সাংবাদিকদের এরদোগানের বক্তব্য নিয়ে আর্ডার্ন বলেছেন, এ মন্তব্যগুলো নিয়ে তুরস্কে আমাদের উপপ্রধানমন্ত্রী মুখোমুখি কথা বলবেন। তিনি সেখানে যাচ্ছেন সরাসরি, ফেস টু ফেস কথা বলতে।তুরস্কের উদ্দেশে রওনা হওয়ার আগে পিটার হামলার ভিডিও ফুটেজ দেখানোর নিন্দা জানান। এ সময় তিনি বিদেশে থাকা নিউজিল্যান্ডের নাগরিকদের বিপদে ফেলতে পারে বলেও মন্তব্য করেন।

এর আগে এরদোগানের মন্তব্য তুরস্কের রাষ্ট্রীয় সম্প্রচারমাধ্যম থেকে সরিয়ে নেয়ার দাবিতে অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী স্কট মরিসনও তার দেশে নিযুক্ত তুরস্কের রাষ্ট্রদূতকে ডেকে পাঠিয়েছিলেন।অস্ট্রেলীয়দের তুরস্ক ভ্রমণে সতর্কতা জারির বিষয়টিও ক্যানবেরা বিবেচনা করছে বলেও মন্তব্য তার।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *