হিরো আলম

জেলে বন্দি হিরো আলমের মন্ত্রী হওয়ার স্বপ্ন

বাংলাদেশ

আলোচিত মডেল-অভিনেতা ও তরুণ রাজনীতিবিদ আরশাফুল হোসেন আলম ওরফে হিরো আলম এখন কারাবন্দী।

স্ত্রীকে মারধরের অভিযোগে ১৪ শিকের ভেরতে রয়েছেন তিনি। কারাগারের বন্দীদশায় আপাতত গল্প করেই সময় কাটছে তার। কারাগারের অন্য বন্দীদের কাছে নিজের স্বপ্নের কথা বলেছেন তিনি।   

ওই গল্পের মধ্যে অধিকাংশ সময়জুড়ে থাকে হিরো আলমের মন্ত্রী হওয়ার বাসনা। তিনি স্বপ্ন দেখেন, আগামী নির্বাচনে তার এলাকা থেকে তিনি নির্বাচিত হবেন। পরে তাকে মন্ত্রী করা হবে। 

এই তখ্যগুলো জানা গেছে বগুড়া কারাগারের জেলার রফিকুল ইসলামের মাধ্যমে। স্ত্রী নির্যাতনের অভিযোগে গত ৮ মার্চ কারাবন্দী হন হিরো আলম।  ১৭ দিন ধরে বন্দী আলমের সময় কাটে শুয়ে-বসে এবং গল্প করে। 

অন্যান্য বন্দীদের সঙ্গে বার্তালাপে তিনি মাঝে মাঝেই মজা করেন।  বন্দীরাও তাকে নিয়ে মজা করেন।  এই সুযোগেই নিজের মনোবাসনা প্রকাশ করেন হিরো আলম।

শুধু এমপি বা মন্ত্রী নন, হিরো আলম হতে চান চলচ্চিত্র নির্মাতাও।  জেল থেকে ছাড়া পাওয়ার পর চলচ্চিত্র নির্মাণে মনোযোগী হতে চান তিনি।

৮ মার্চ কারাবন্দী হওয়ার পর জনপ্রিয়তার ভিত্তিতে নিরাপত্তার স্বার্থে হিরো আলমকে রাখা হয় অধুমপায়ী সেলে।  সেলটিতে তার সঙ্গে রয়েছেন আরও ৩-৪ জন হাজতি।

গত ১৬ দিনে তাকে দেখতে মাত্র একবার তার পরিবার সদস্যরা এসেছিলেন।  এ ছাড়া আরও কেউ তার সঙ্গে দেখা করেননি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *