শিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহ আর নেই

বাংলাদেশ

(ঢাকা, বাংলাদেশ) কণ্ঠশিল্পী শাহনাজ রহমতুল্লাহ আর নেই (ইন্নানিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাহি রাজিউন)। শনিবার (২৩ মার্চ) দিনগত রাত সাড়ে ১১টায় হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে তিনি মারা গেছেন। সংগীতশিল্পী শফিক তুহিন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, শনিবার রাতে হঠাৎ করে তিনি হৃদরোগে আক্রান্ত হন তিনি। এরপর তাকে আর হাসপাতালে নেয়ার সুযোগ হয়নি। বাসাতেই শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। খবর আরটিভি অনলাইনের।

১৯৫২ সালে জন্ম নেন এই শিল্পী। মাত্র ১১ বছর বয়সে ১৯৬৩ সালে রেডিও এবং চলচ্চিত্রের গানে যাত্রা শুরু করেন তিনি। ১৯৬৪ সালে টেলিভিশনে প্রথম গান করেন। পাকিস্তানে থাকার সুবাদে করাচি টিভিসহ উর্দু ছবিতেও গান করেছেন। গান শিখেছেন গজল সম্রাট মেহেদী হাসানের কাছে।

শাহনাজ রহমত উল্লাহ’র স্বামী মেজর (অব.) আবুল বাশার রহমত উল্লাহ ব্যবসায়ী, ছেলে এ কে এম সায়েফ রহমত উল্লাহ কানাডায় থাকেন। মেয়ে নাহিদ রহমত উল্লাহ থাকেন লন্ডনে।‘এক নদী রক্ত পেরিয়ে’, ‘জয় বাংলা বাংলার জয়’, ‘একবার যেতে দে না আমার ছোট্ট সোনার গাঁয়’, ‘একতারা তুই দেশের কথা বলরে এবার বল’, ‘প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ’সহ অসংখ্য কালজয়ী গান গেয়েছেন তিনি।

শাহনাজ রহমত উল্লাহ ১৯৯০ সালে ‘ছুটির ফাঁদে’ ছবিতে গান গেয়ে জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান। ১৯৯২ সালে পান একুশে পদক। ‘চ্যানেল আই মিউজিক অ্যাওয়ার্ড’ এর সৌজন্যে তিনি পেয়েছেন আজীবন সম্মাননা। এ ছাড়া গান গেয়ে অসংখ্য পুরস্কার পেয়েছেন তিনি।

প্রিয়শিল্পীর মৃত্যুতে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শোক প্রকাশ করছেন তার ভক্তেরা। শ্রদ্ধা জানাচ্ছেন প্রিয়শিল্পীর গাওয়া জনপ্রিয় গানগুলো শেয়ার করে। ফেসবুকে একজন লিখেছেন, ‘গানের পাখি চলে গেলেন। ইন্না লিল্লাহি ওয়া ইন্না ইলাইহি রাজিউন। দেশাত্মবোধক গান যে কতো শ্রুতিমধুর হতে পারে সেটি শাহনাজ রহমতুল্লাহ প্রমাণ করে গেছেন। তার উল্লেখযোগ্য গানগুলো হলো: এক নদী রক্ত পেরিয়ে, একবার যেতে দে না আমার ছোট্ট সোনার গাঁয়ে, একতারা তুই দেশের কথা বলরে‌ এবার বল, প্রথম বাংলাদেশ আমার শেষ বাংলাদেশ, আমায় যদি প্রশ্ন করে, যে ছিল দৃষ্টির সীমানায় ইত্যাদি)।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *