লোকসভা নির্বাচন : ঘৃণা-বিদ্বেষের রাজনীতির বিরুদ্ধে ভোট দেয়ার আবেদন ২ শতাধিক লেখক-শিল্পীর

ভারত

(নয়াদিল্লি, ভারত) ভারতে ঘৃণার রাজনীতির বিরুদ্ধে ভোট দেয়ার আবেদন জানিয়েছেন দেশটির প্রায় দুই শতাধিক লেখক-শিল্পী। দেশটির নানা প্রান্তের লেখক শিল্পী ও নাট্যব্যক্তিত্ব এক আবেদনে বলেছেন, ঘৃণার রাজনীতি আর নয়। দেশের ঐক্যের দিকে লক্ষ্য রেখে ভোট হোক। ঘৃণার রাজনীতির চর্চা না করতে রাজনীতিবিদদের কাছেও আরজি জানিয়েছেন তারা। গিরিশ কারনাড, অরুন্ধতী রায়, অমিতাভ ঘোষ, নয়নতারা সেহগল, টিএম কৃষ্ণা, বিবেক শানবাগ, জিত থাইল, রোমিলা থাপারের মতো লেখকরা এই আবেদনে স্বাক্ষর করেছেন।

সোমবার স্বাক্ষরিত এই আবেদনটি প্রকাশ্যে আনা হয়েছে। ইংরেজি, হিন্দি, বাংলা, মাললায়ম, তামিল, তেলুগু, মারাঠি, উর্দু, গুজরাটি ও কান্নাড়া ভাষার বেশিরভাগ সাহিত্যিক সই করেছেন আবেদনে। আসন্ন লোকসভা নির্বাচন সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার আবেদন জানানোর পাশাপাশি বলা হয়েছে, সবার জন্য সমান অধিকার ও নিজের পছন্দের জীবনচারণের যে অধিকারের কথা সংবিধানে বলা রয়েছে তাকে যেন মান্যতা দেয়া হয়।

মতপ্রকাশের স্বাধীনতার পক্ষেও সওয়াল করেছেন তাঁরা। গত কয়েক বছরে দেশে ঘৃণা মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছে বলে তাঁরা আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন। মানুষকে ধর্মের ভিত্তিতে, তাঁর জীবন যাপনের ভিত্তিতে মূল্যায়ন করা হচ্ছে বলে অভিযোগ জানিয়েছেন তাঁরা। তাঁদের মতে, ভারতের মতো বহুমাত্রিক দেশে যেখানে বৈচিত্র্যের মধ্যেই ঐক্যের বাস, সেখানে এই ধরণের মানসিকতার উদয় হওয়া উদ্বেগের বিষয়। লেখক ও শিল্পীমহলের ওপর নেমে আসা অযাচিত শাস্তি ও রোষ নিয়েও শঙ্কা প্রকাশ করেছেন দেশের এই সব প্রখ্যাত লেখকরা। তারা বলেছেন, গণতন্ত্রের আক্ষরিক অর্থে উন্মেষ ঘটুক। সেইমতই মানুষ ভোট দিক। 

এর আগে প্রধানত দক্ষিণ ভারতের শতাধিক চলচ্চিত্র নির্মাতাও গেরুয়া শিবিরকে ভোট না দেবার আহ্বান জানিয়ে বলেছেন, বিজেপি ফের ক্ষমতায় ফিরলে বাক ও মত প্রকাশের স্বাধীনতায় সেন্সরের আশঙ্কা রয়েছে। আনন্দ নপাটবর্ধন, সনলকুমার শশীধরণ, সুধেভন, কিউ, দীপক ধনরাজের মতো চলচ্চিত্র নির্মাতারা আবেদন জানালেও বলিউড বা টলিউডের কেউ এই আবেদনে যুক্ত হন নি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *