মালয়েশিয়ার ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অর্থ কেলেঙ্কারি মামলায় নাজিব রাজাকের বিচার শুরু

এশিয়া প্যাসিফিক লিড নিউজ

(কুয়ালালামপুর, মালয়েশিয়া) মালয়েশিয়ার ইতিহাসে সবচেয়ে বড় অর্থ কেলেঙ্কারির ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে বিচার শুরু হয়েছে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের। বুধবার কুয়ালালামপুরের একটি আদালতে তার বিচার প্রক্রিয়া শুরু হয়। তার বিরুদ্ধে রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন বিনিয়োগ তহবিল ‘ওয়ান মালয়েশিয়া ডেভেলপমেন্ট বেরহাদ’ (ওয়ানএমডিবি) থেকে ৬৮ কোটি মার্কিন ডলারেরও বেশি অর্থ আত্মসাতের অভিযোগ আনা হয়েছে। খবর বিবিসির।

অর্থ আত্মসাতের এই ঘটনা সারা বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়েছিল। অর্থ কেলেঙ্কারির কারণেই গত বছরের নির্বাচনে  পরাজয় হয় তার। মালয়েশিয়ার বর্তমান সরকার যুক্তরাষ্ট্রের আর্থিক প্রতিষ্ঠান গোল্ডম্যান শ্যাকসের বিরুদ্ধেও অপরাধের মামলা করেছে। ঐ প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে প্রধান অভিযোগ – ওয়ান এমিডিবি তহবিলের জন্য বন্ড বিক্রি করে টাকা তুলে বিনিয়োগকারীদের সাথে প্রতারণা করা হয়েছে। বুধবার শুনানির প্রথম দিনে নাজিব রাজাক অবশ্য সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করেছেন। গোল্ডম্যান শ্যাকসও বলেছে তারা প্রতারণার মামলাটি লড়বে। নাজিবের বিরুদ্ধে মোট ৪২টি অভিযোগ যার প্রথমটিতে বুধবার বিচার শুরু হয়।

নাজিব রাজাক ক্ষমতায় থাকার সময়ে কৌশলগত বিনিয়োগের মাধ্যমে মালয়েশিয়ার অর্থনৈতিক অগ্রগতি ত্বরান্বিত করতে ২০০৯ সালে ওয়ানএমডিবি তহবিল গঠন করা হয়। তবে অভিযোগ ওঠে বিনিয়োগের পরিবর্তে এই তহবিল দিয়ে বিলাসবহুল প্রমোদতরী, হলিউড ছবি নির্মাণসহ উচ্ছৃঙ্খল জীবনাচরণে ব্যয় হয়। গত বছর নির্বাচনে পরাজিত হয়ে ক্ষমতা ছাড়ার পর জুলাইতে এই মামলায় তার বিরুদ্ধে অভিযোগ গঠন করা হয়। পরে তিনি জামিনে মুক্তি পান।

বুধবার কুয়ালালামপুরের আদালতে হাজির হলে নাজিবে সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন তার বেশ কয়েকজন সমর্থক। আদালত কক্ষে প্রবেশের আগে সমর্থকদের নিয়ে প্রার্থনা করেন নাজিব। আদালতে বিচার প্রক্রিয়া বিলম্বিত করতে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত চেষ্টা চালান নাজিবের আইনজীবীরা। তবে আদালত তাদের বিপক্ষে রুল দেন। আদালতে সূচনা বক্তব্যে মালয়েশিয়ার অ্যাটর্নি জেনারেল টমি টমাস বলেন, ক্ষমতায় থাকার সময়ে প্রায় নিরঙ্কুশ ক্ষমতার অধিকারী নাজিব বিশাল দায়িত্ব পালন করেছেন। তবে কেউই আইনের ঊর্ধ্বে নয়।

ক্ষমতা ছাড়ার মাত্র দুই মাসের মধ্যে নাজিবের বিরুদ্ধে প্রতারণার তিনটি ও ক্ষমতার অপব্যবহারের একটি অভিযোগ আনা হয়। সব মিলে তার বিরুদ্ধে মোট ৪২টি অভিযোগ আনা হয়েছে। এর বেশিরভাগই ওয়ানএমবিডি তহবিল সংক্রান্ত। বুধবার তার বিরুদ্ধে এক কোটি মার্কিন ডলার নিজের তহবিলে সরিয়ে নেওয়ার অভিযোগের বিচার শুরু হয়েছে। চলতি বছরের ১২ ফেব্রুয়ারি বিচার শুরু হওয়ার কথা থাকলেও সংশ্লিষ্ট আপিল নিষ্পত্তি করতে গিয়ে দেরিতে শুরু হলো এই বিচার প্রক্রিয়া।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *