রাশিয়ার এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা হাতে পেল তুরস্ক

ইউরোপ

(আঙ্কারা, তুরস্ক) মার্কিন চাপ উপেক্ষা করে রাশিয়া থেকে এস -৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা গ্রহণ করেছে তুরস্ক। ক্ষেপণাস্ত্রটির প্রথম ধাপের কিছু গুরুত্বপূর্ণ অংশ রাশিয়া থেকে আনা হয়েছে। কয়েক দিন আগেই রাশিয়া এসব যন্ত্রাংশ সরবরাহ করেছে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান এফ-৩৫ হস্তান্তরের পুরোপুরি অসম্মতি জ্ঞাপন করার পরই তুরস্ক রাশিয়া থেকে এস-৪০০ ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার যন্ত্রাংশ গ্রহণ করে। দেশটির নিরাপত্তা বাহিনীর বরাত দিয়ে বুধবার এ তথ্য জানায় তুরস্কভিত্তিক গণমাধ্যম ইয়েনি শাফাক।

এর আগে ওয়াশিংটনের পক্ষ থেকে তুরস্ককে সতর্ক করা হয়েছিল যে, রাশিয়া থেকে আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ ক্রয় না করতে। তুরস্ক নিজের সিদ্ধান্তে অটল থাকায় মার্কিন তৈরি এফ-৩৫ তুরস্ককে হস্তান্তর করা হয়নি। ওই সূত্র জানায়, এস-৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার গুলি ছোড়ার ব্যবস্থা ও রাডারের যন্ত্রাংশ তুরস্কে এসে পৌঁছেছে।

মঙ্গলবার মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র তাদের তৈরি অত্যাধুনিক এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান হস্তান্তর প্রক্রিয়া বাতিল করে। কারণ হিসেবে তারা বলছে, তুরস্ক রাশিয়া থেকে এস-৪০০ আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা ক্রয় করছে।  তুরস্ক ১৯৯৯ সালে ১০০টি এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান কেনার জন্য আমেরিকার সঙ্গে চুক্তি করেছে। এর মধ্যে গত বছরের ২২ জুলাই প্রথম চালান হিসেবে একটি বিমান হস্তান্তর করে আমেরিকা।

ন্যাটোভুক্ত দেশ তুরস্ক আমেরিকা নেতৃত্বাধীন কয়েকটি দেশের এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান তৈরি ও কেনার প্রকল্পে যুক্ত রয়েছে। অন্যান্য দেশগুলো হচ্ছে আমেরিকা, ইংল্যান্ড, ইতালি, নেদারল্যান্ড, কানাডা, অস্ট্রেলিয়া, নরওয়ে এবং ডেনমার্ক। তুরস্ক রাশিয়ার এস-৪০০ আকাশ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা ক্রয়ে অটল থাকলে যুক্তরাষ্ট্র সিনেটে তুরস্কের বিরুদ্ধে অত্যাধুনিক এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান না দিতে বিল পাস করে। ২০১৭ সালের ডিসেম্বরে এস-৪০০ পাওয়ার জন্য রাশিয়ার সঙ্গে ২৫০ কোটি ডলারের চুক্তি করে তুরস্ক।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *