পাল্টা মার্কিন সেনাবাহিনীর সেন্টকমকে সন্ত্রাসী বাহিনী ঘোষণা ইরানের

মধ্যপ্রাচ্য লিড নিউজ

(তেহরান, ইরান) নিজেদের এলিট ফোর্স ইসলামিক রিভল্যুশনারি গার্ড কর্পসকে (আইআরজিসি) সন্ত্রাসী ঘোষণার পর যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে পাল্টা পদক্ষেপ নিয়েছে ইরান। মধ্যপ্রাচ্যে মোতায়েন মার্কিন বাহিনী সেন্টকমকে সন্ত্রাসী হিসেবে ঘোষণা করেছে তেহরান। মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনে ভাষণ দিয়ে এ ঘোষণা দেন ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি। খবর আলজাজিরার।

এর আগে সোমবার নজিরবিহীনভাবে ইরানের এলিট ফোর্সকে ‘বিদেশি সন্ত্রাসী সংগঠন’ আখ্যা দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। পাল্টা পদক্ষেপে ইরানও মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের অধীনস্থ বাহিনী ইউএস সেন্ট্রাল কমান্ড, সংক্ষেপে সেন্টকমকে সন্ত্রাসী সংগঠন আখ্যা দিয়েছে।

সরাসরি প্রচারিত ওই ভাষণে তিনি বলেন, ‘আইআরজিসি সদস্যরা আমাদের জনগণ ও বিপ্লবকে সুরক্ষা দেয়ার জন্য নিজেদের জীবন কুরবানি দিয়েছে। আমেরিকা এই গার্ডদের কালো তালিকাভুক্ত করেছে। এই বাহিনীর প্রতি ক্ষোভ থেকেই যুক্তরাষ্ট্র এ পদক্ষেপ নিয়েছে।’

একই সঙ্গে যুক্তরাষ্ট্রকে সন্ত্রাসবাদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষক বলেও ঘোষণা করে ইরান। রুহানি যুক্তরাষ্ট্রের এই পদক্ষেপকে বড় ভুল আখ্যা দিয়েছেন। আর ইরানের অন্য পদস্থ কর্মকর্তারা সতর্কবার্তা দিয়ে বলেছেন, এর ফলে মধ্যপ্রাচ্যে মার্কিন স্বার্থ বাধাগ্রস্ত হবে। কেননা সিরিয়া থেকে লেবানন সবখানেই ইরান ছায়াযুদ্ধের অংশ।

রুহানি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের এই ভুল ইরানিদের আরো ঐক্যবদ্ধ করবে। আর আইআরজিসি ইরানে আরো জনপ্রিয় হবে। এ অঞ্চলে আমেরিকা সন্ত্রাসীদের নিজেদের স্বার্থ উদ্ধারের উপকরণ হিসেবে ব্যবহার করে। আর আইআরজিসি সদস্যরা এদের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করছে।

প্রসঙ্গত গত বছরের মে মাসে ডনাল্ড ট্রাম্প ইরানের সঙ্গে পারমাণবিক চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে একতরফাভাবে সরিয়ে নেন। এরপর থেকেই দু’দেশের সম্পর্কে ক্রমশ অবনতি ঘটছে। পরস্পরের নিরাপত্তা বাহিনীকে কালো তালিকাভুক্ত করার ঘটনায় সে তিক্ততা আরো তীব্র হবে বলে মনে করছেন বিশ্লেষকরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *