সৌদি যুবরাজ

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্ট আব্বাসকে ১ হাজার কোটি ডলার ‘ঘুষ’ দিতে চান সৌদি যুবরাজ

মধ্যপ্রাচ্য

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প কথিত ‘শতাব্দির সেরা চুক্তি’ নামে যে পরিকল্পনা নিয়েছেন তা মেনে নিতে ফিলিস্তিনি স্বশাসন কর্তৃপক্ষের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসকে ১,০০০ কোটি ডলারের ‘ঘুষ’ দিতে চেয়েছেন সৌদি যুবরাজ মুহাম্মাদ বিন সালমান।

ইহুদিবাদী ইসরাইলের সঙ্গে ফিলিস্তিনের চলমান সংকট নিরসনের নামে ট্রাম্প কথিত এ শান্তি প্রস্তাব দেন। তবে ফিলিস্তিনের নেতারা ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় ট্রাম্পের প্রস্তাবকে সমর্থন করেন নি।

এ সত্ত্বেও সৌদি যুবরাজ বিন সালমান ট্রাম্পের প্রস্তাব মেনে নিতে ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষের ওপর চাপ সৃষ্টি করেছেন।

লেবাননের আরবি ভাষার দৈনিক আল-আখবার মঙ্গলবার এক প্রতিবেদনে জানিয়েছে, মাহমুদ আব্বাস সৌদি যুবরাজের প্রস্তাব নাকচ করে বলেছেন, “এ প্রস্তাব মেনে নিলে তার রাজনৈতিক জীবন শেষ হয়ে যাবে।”

ট্রাম্প (বামে) ও নেতানিয়াহু

এ প্রস্তাব নিয়ে সৌদি যুবরাজ ও ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্টের মধ্যে টেলিফোনে আলাপ হয়েছে এবং ফিলিস্তিনের কয়েকজন কর্মকর্তা বিষয়টি নিয়ে রামাল্লায় নিযুক্ত জর্দানের কূটনীতিক খালেদ আল-শাওয়াবকেহকে ব্রিফ করেছেন। এসব তথ্যের ওপর ভিত্তি করে লেবাননের আল-আখবারিয়া ওই প্রতিবেদন ছেপেছে।

লেবাননের পত্রিকার খবর অনুসারে, সৌদি যুবরাজ ট্রাম্পের প্রস্তাবের মূল বিষয়বস্তু মাহমুদ আব্বাসকে জানান এবং তিনি ফিলিস্তিনি প্রতিনিধিদলের জন্য বার্ষিক বাজেট কত জানতে চান। জবাবে মাহমুদ আব্বাস বলেন, “আমি কোনো যুবরাজ নই যে, আমার সফরসঙ্গী থাকবে।”

এরপর বিন সালমান বলেন, “ফিলিস্তিনি কর্তৃপক্ষ, তাদের মন্ত্রিসভা ও সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারিদের জন্য বছরে কত অর্থ লাগে?” জবাবে আব্বাস বলেন, ফিলিস্তিনিদের জন্য বছরে ১০০ ডলার প্রয়োজন। তখন সৌদি যুবরাজ বলেন, “আপনি যদি শতাব্দির সেরা চুক্তি মেনে নেন তাহলে আগামী ১০ বছরে আমি ১,০০০ কোটি ডলার দেব।”#

পার্সটুডে

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *