রাশিয়ায় বিমান দুর্ঘটনায় নিহত ৪১

ইউরোপ লিড নিউজ

(মস্কো, রাশিয়া) রাশিয়ায় রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন একটি বিমান দুর্ঘটনার শিকার হয়ছে। জরুরি অবতরণের পর সেটিতে আগুন ধরে যায়। এতে অন্তত ৪১ জন নিহত হয়েছেন। মস্কোর শেরেমেতইয়েভো বিমানবন্দরে এ ঘটনা ঘটেছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করা ভিডিওতে দেখা গেছে, পুড়তে থাকা অ্যারোফ্লোট বিমানের যাত্রীরা ইমারজেন্সি এক্সিট স্লাইড দিয়ে বের হওয়ার চেষ্টা করছেন।

রাশিয়ার গণমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, নিহতদের মধ্যে দুজন শিশু ও একজন বিমানের ক্রুও রয়েছেন। একজন প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, ওই দুর্ঘটনায় কারও বেঁচে যাওয়াটা একটি ‘বিস্ময়’। বিমানটিতে ৭৮ জন যাত্রী ও পাঁচজন ক্রু ছিল।

রাশিয়ার স্বাস্থ্যমন্ত্রী ভেরোনিকা স্কভোর্তসোভা এক বিবৃতিতে বলেছেন, ছয়জন রোগী হাসপাতালে ভর্তি আছেন। তাদের মধ্যে তিনজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক বলেও জানিয়েছেন তিনি। রাশিয়ার রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন অ্যারোফ্লোট বিমান কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ‘কারিগরি কারণে’ তাদের ওই বিমানটি বিমানবন্দরে ফিরে আসতে বাধ্য হয়। তবে কী কারণে এমনটা করতে হয়েছে সেটির বিস্তারিত জানায়নি তারা।

সুখোই সুপারজেট-১০০ মডেলের ওই বিমানটি শেরেমেতইয়েভো বিমানবন্দর থেকে স্থানীয় সময় সন্ধ্যা ৬টা ২ মিনিটে মুরমানস্ক শহরের উদ্দেশে ছেড়ে যায়। কিন্তু উড্ডয়নের কিছুক্ষণ পর ‘ত্রুটি’ দেখা দিলে বিমানের ক্রুরা একটি ডিস্ট্রেস সিগন্যাল পাঠায়।

অ্যারোফ্লোট এক বিবৃতিতে জানিয়েছে, ওই বিমানটি বিমানবন্দরে জরুরি অবতরণ করার পর রানওয়েতেই বিমানের ইঞ্জিনের আগুন ধরে যায়। বিমানের আরোহীদের ৫৫ সেকেন্ডের মধ্যে বের করে আনা হয়েছে উল্লেখ করে তারা জানিয়েছে, ‘যাত্রীদের বাঁচাতে ক্রুরা সবকিছু করেছে।’এদিকে রাশিয়ার তদন্তকারী কমিটি জানিয়েছে, ওই বিমানের ৭৮ জন যাত্রীর মধ্যে এখন পর্যন্ত ৩৭ জনের সন্ধান পাওয়া গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *