সাইবেরিয়ায় পাওয়া গেল ৪০ হাজার বছর আগের নেকড়ের কাটা মাথা

ইউরোপ

(মস্কো, রাশিয়া) রাশিয়ার সাইবেরিয়ায় ৪০ হাজার বছর পুরোনো বরফ যুগের একটি নেকড়ের কাটা মাথা পাওয়া গেছে। কাটা মাথাটি হিমায়িত অবস্থায় পাওয়া গেছে। ওই নেকড়ের কাটা মাথাটির আকার বিস্ময় জাগানিয়া। ছবিতে দেখা গেছে, নেকড়ের কাটা মাথাটি এখনও স্ফীত অবস্থায় রয়েছে। খবর দ্য সানের।

সাইবেরিয়ার বরফে জমে থাকা অবস্থায় নেকড়ের ওই মাথাটি পাওয়া গেছে। এর মস্তিস্ক এখনও অবিকৃত অবস্থায় রয়েছে। বিজ্ঞানীরা এটিকে ‘এককভাবে প্লেইস্টোসিন যুগের নেকড়ের প্রথম অনন্য আবিষ্কার যার টিস্যুগুলো অক্ষত রয়েছে’ বলে বর্ণনা করেছেন।

স্থানীয় অধিবাসী পাভেল এফিমভ টিরেকিথা নদীবেস্টিত পার্মাফ্রোস্ট এলাকায় নেকড়ের মাথাটি খুঁজে পেয়েছেন। মনে করা হচ্ছে, নেকড়ের মাথাটি প্রাচীনকালের কোনও শিকারির জয়ের স্মারক (ট্রফি)।

এই বিস্ময়কর আবিষ্কারটি ম্যামোথসহ হিমায়িত পশুদের অবশিষ্টাংশের সঙ্গে টোকিওতে একটি প্রদর্শনীতে রাখা হয়েছে। নেকড়েটি এ যুগের সাইবেরিয়ান নেকড়ের চেয়ে অনেক বড় ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। কারণ এটার রয়েছে ‘ম্যামথের মতো’ পুরু চামড়া ও ‘ফ্যাঙ্গস বা ধারালো দাঁত’।

রাশিয়ান বিজ্ঞানী ড. আলবার্ট প্রোটিপোভভ বলছেন, এটি প্লাইসটোসিন যুগের নেকড়ে যার টিস্যুগুলো এখনও সংরক্ষিত অবস্থায় রয়েছে। আধুনিক যুগের নেকড়েদের সঙ্গে তুলনামূলক বিশ্লেষণ করে কিভাবে এই প্রজাতিগুলো উন্নত হয়েছে এবং তার চেহারা পুনর্নির্মাণের জন্য আমরা কাজ করবো।

এই নেকড়ের মাথাটি প্রায় ১৬ ইঞ্চি দীর্ঘ যা সাইবেরিয়ার আধুনিক যুগের নেকড়ের পুরো দৈর্ঘ্যের প্রায় অর্ধেক। জাপানি বিজ্ঞানীদের মতে, এই নেকড়েটির বয়স ৪০ হাজার বছরেরও বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *