মুসলিম নারীদের গণধর্ষণের আহ্বান বিজেপি নেত্রীর

ভারত

নয়াদিল্লি, ভারত- ভারতে মুসলিম নারীদের গণধর্ষণে হিন্দুদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন ক্ষমতাসীন বিজেপির এক নেত্রী। ফেসবুকে উস্কানিমূলক পোস্ট এই আহ্বান জানিয়েছেন তিনি। বলেছেন, হিন্দু পুরুষদের উচিৎ মুসলিম নারীদের গণধর্ষণ করা। এই মন্তব্যের পর তাকে দলীয় পদ থেকে সরিয়ে দেয়া হয়েছে। সোমবার এ খবর দিয়েছে এক্সপ্রেস ট্রিবিউন।

উত্তরপ্রদেশের রামকোলার বিজেপি মহিলা মোর্চার নেত্রী সুনীতা সিং গৌড় ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘মুসলিমদের জন্য একটাই সমাধান রয়েছে। হিন্দু ভাইয়েদের ১০ জন করে দল তৈরি করে মুসলিম মা ও বোনেদের প্রকাশ্য রাস্তায় গণধর্ষণ করা উচিত। এরপর সবাইকে দেখানোর তাদের বাজারের মাঝখানে ঝুলিয়ে দেয়া উচিত।’

এখানেই না থেমে তিনি আরও বলেছেন, ‘মুসলিম মা ও বোনেদের উচিত নিজেদের সম্ভ্রম লুঠ করতে দেয়া। কারণ দেশকে রক্ষা করতে এ ছাড়া আর অন্য কোনো উপায় নেই।’ ফেসবুকে এই পোস্টটি করার পরই তা ভাইরাল হয়ে যায়।

নেত্রীর তুমুল সমালোচনায় মুখর হয় দেশটির সচেতন মহল। প্রবল চাপের মুখে তাঁকে দলীয় পদ থেকে সরিয়ে দেয় বিজেপি। বিজেপি মহিলা মোর্চার জাতীয় সভানেত্রী বিজয় রাহাতকর গৌড়ের টুইটের জবাবে বলেছেন, এ ধরনের মন্তব্য কোনোভাবেই সহ্য করা হবে না। যারা এমন করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। আমরা ইতোমধ্যে ওই নারীকে দল থেকে বহিষ্কার করেছি।’

বিজেপির সদস্যদের এ ধরনের উস্কানিমূলক বক্তব্য এটাই প্রথম নয়। কট্টর হিন্দুত্ববাদী দলটি ফের ক্ষমতায় আসার পর থেকে ভারত জুড়ে মুসলিমদের ওপর নির্যাতনের মাত্রা ভয়াবহ আকার নিয়েছে। কারণে-অকারণে চলছে নির্যাতন। কথিত গো-রক্ষার নামে হত্যা করা হচ্ছে মুসলিমদের। এর জন্য হিন্দু উগ্রবাদী সংগঠনকে দায়ী করছে বিভিন্ন মানবাধীকার সংস্থা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *