শিগগিরই নির্মাণ শুরু হচ্ছে ইরাক-ইরান রেলপথ

মধ্যপ্রাচ্য

তেহরান, ইরান- ইরাকের সঙ্গে রেলপথে যুক্ত হচ্ছে প্রতিবেশী দেশ ইরান। বিশাল এই রেলপথ প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত করা আরেক প্রতিবেশী দেল সিরিয়াকেও। দীর্ঘ আলাপ-আলোচনা শেষে খুব শিগগিরই এ রেলপথ শুরু করতে যাচ্ছে তেহরান। আগামী কয়েক মাসের মধ্যে নির্মাণকাজ শুরু হবে বলে জানিয়েছেন ইরানের রোড ও শহর উন্নয়ন বিষয়ক উপমন্ত্রী খাইরুল­াহ খাদেমি। ইরানি বার্তা সংস্থা ফার্স নিউজের বরাত দিয়েছে মঙ্গলবার এ খবর জানিয়েছে মিডিল ইস্ট মনিটর।

সম্প্রতি প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানির ইরাক সফরের পর দুই দেশের মধ্যে ইতিবাচক সব পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। সোমবার এক ঘোষণায় এ কথা জানান উপমন্ত্রী খাইরুল­াহ খাদেমি। তিনি জানান, ইরানের দক্ষিণাঞ্চলীয় শালামচে শহর থেকে ইরাকের দক্ষিণাঞ্চলীয় বসরা নগরী পর্যন্ত ৩২ কিলোমিটার দীর্ঘ হবে রেলপথটি। তেহরান যেকোনো সময় কাজ শুরু করতে প্রস্তুত বলেও জানিয়েছেন তিনি। তিনি।

ইরাক-ইরান ও সিরিয়াকে একপথে আনতে গত কয়েক মাস ধরে তিন দেশের মধ্যে আলোচনা চলছিল। সম্প্রতি ইরানি প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানির ইরাক সফরে দেশটির সঙ্গে একটি সমঝোতা স্বারক স্বাক্ষর করেন। সে সময় ইরাকের জাতীয় রেল কোম্পানির প্রধান সালিব আল-হুসাইনি এক বিবৃতিতে এ কথা জানান। তিনি বলেন,পারস্য উপসাগরকে ভ‚মধ্যসাগরের সঙ্গে সংযোগ করার জন্য এ রেল লাইন খুবই কার্যকর হবে।

ইরানের ভাইস প্রেসিডেন্ট ইসহাক জাহাঙ্গিরি সম্প্রতি বলেন, আমরা পারস্য উপসাগরের উপক‚ল থেকে ইরাক ও সিরিয়া হয়ে ভ‚মধ্যসাগর পর্যন্ত রেল ও সড়কপথে সংযুক্ত হবো। এ ব্যাপারে তেহরান ও বাগদাদের মধ্যে ২২২ কোটি রিয়াল ব্যয়ে শালামচে-বসরা রেললাইন সমঝোতা স্মারক সই হয়।


Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *