শিশুশ্রমের পক্ষে কথা বলে সমালোচনার মুখে ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট

আমেরিকা

ব্রাসিলিয়া, ব্রাজিল- শিশুশ্রমের পক্ষে কথা বলে সমালোচনার মুখে পড়েছেন ব্রাজিলের প্রেসিডেন্ট জাইর বলসোনারো। তিনি শুক্রবার সাপ্তাহিতক লাইভ ফেসবুক অনুষ্ঠানে বলেন, ৮ বছর বয়স থেকে আমি কাজ করছি। আজ আমি একজন ডান পন্থী নেতা।  তিনি আরও বলেন, যখন একটি শিশু ৮/৯ বছর বয়স থেকে কাজ শুরু করে তখন অনেকেই একে ‘বাধ্যতামূলক শ্রম’ বা ‘শিশু শ্রম’ বলে থাকে। কিন্তু যখন একটি শিশু ধুমপান করে তখন কেউ কিছু বলেনা। কর্মই মানুষকে সম্মানিত করে, এক্ষেত্রে বয়স কোন ব্যাপার নয়।

এরপর শনিবার তিনি ২০১৭ সালের একটি ভিডিও আবার প্রকাশ করেন। ওই ভিডিওতে দেখা যায়, ফ্রাঙ্ক গিয়াসিকো নামে ১১ বছরের একটি শিশু কাস্তে দিয়ে হোয়াইট হাউজের লনের ঘাস কেটে পরিপাটি করছে এবং মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশংসা করছে। ওই ভিডিও পোষ্ট করে তিনি লেখেন, ‘কর্মই মানুষকে মর্যাদা সম্পন্ন করে’।

বলসোনারোর ওই বক্তব্যে তুমুল সমালোচনা শুরু হয়েছে। এ প্রসঙ্গে সমাজতান্ত্রিক রাজনীতিবিদ মার্সেলো ফ্রেইক্সো বলেন, শিশুকে কাজ না করতে উৎসাহিত করার জন্য তিনিই সর্বোত্তম উদাহরণ। তিনি শিশু থেকে পরিণত হয়ে বেড়ে উঠেছেন ঘৃণা ও অক্ষমতার সাথে।

ব্রাজিল গণমাধ্যম ২০১৫ সালে বলসোনারোর ভাইয়ের দেয়া বিপরীতধর্মী বক্তব্য প্রকাশ করেছে। ওই বক্তব্যে বলসোনারোর ভাই রেনাতো বলসোনারো বলেছিলেন, আমার বাবা ছিলেন ভবঘুরে মানুষ। কিন্তু তিনি তার কোন ছেলেকে কাজ করতে দিতেন না। কারণ তিনি মনে করতেন আমাদের পড়াশুনা করতে হবে। ব্রাজিলের আইনে ১৬ বছর বয়স পর্যন্ত শিশুশ্রম নিষিদ্ধ। শুধুমাত্র শিক্ষানবীশ হিসেবে ১৪ বছরের শিশুরা কাজ করতে পারে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *