আফগানিস্তানে স্বাধীনতা দিবসেও হামলা, আহত ৬৬

পূর্ব এশিয়া

কাবুল, আফগানিস্তান- স্বাধীনতা দিবসে আফগানিস্তানের পূর্বাঞ্চলীয় শহর জালালাবাদে বেশ কয়েকটি শক্তিশালী বোমা বিস্ফোরণে শিশুসহ অর্ধশতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন৷ দেশটির নানগারহার প্রদেশের একটি শহর ও এর আশপাশে সোমবার ১০টি বোমা বিস্ফোরণ ঘটানো হয়। হতাহতের ঘটনা ঘটে৷ আহতের সংখ্যা বাড়তে পারে। বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৬৬ জন আহত হয়েছেন৷ তবে এখনো কেউ হামলার দায় স্বীকার করেনি। খবর এএফপির।

মাত্র দুই দিন আগে রাজধানী কাবুলে একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে আত্মঘাতী বোমা হামলায় ৬৩ জন নিহত এবং ১৮০ জন আহত হন। যার দায় স্বীকার করেছে আইএস। সোমবার আফগানিস্তানের স্বাধীনতা দিবসের দিন সরকারি ছুটি ছিল।

ব্রিটেন থেকে স্বাধীনতার শততম বছর উদযাপনে এদিন আফগানিস্তানে সরকারিভাবে বিভিন্ন কর্মসূচি নেওয়া হয়েছিল। সাধারণ জনগণ তাতে যোগ দিয়েছিলেন৷ নানগারহার গভর্নরের মুখপাত্র আতাউল্লাহ খোগিয়ানী জানিয়েছেন, মানুষ যখন স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করছিল তখন জালালাবাদের বিভিন্ন অঞ্চলে ইমপ্রোভাইজ্‌ড এক্সপ্লোসিভ ডিভাইস (আইইডি) বিস্ফোরণ হয়৷

জালালাবাদের আশপাশের অঞ্চলে তালেবান যোদ্ধা ও ইসলামিক স্টেটের স্থানীয় গ্রুপের সদস্যদের আবাসস্থল হওয়ায় এই অঞ্চলে প্রায়ই বোমা বিস্ফোরণের খবর পাওয়া যায়৷ সোমবারের বিস্ফোরণের পর খোগিয়ানী জানিয়েছিলেন কমপক্ষে ১৯ জন আহত হয়েছে৷ তবে স্থানীয় হাসপাতালের একজন মুখপাত্র বলছেন, বিস্ফোরণে আহত প্রায় ৪০ জনকে হাসপাতালে আনা হয়েছিল এবং এই সংখ্যা আরো বাড়তে পারে৷ বিস্ফোরণে কমপক্ষে ৬৬ জন আহত হয়েছে বলে রয়টার্স নিশ্চিত করেছে৷

আহতদের মধ্যে শিশুরাও রয়েছে বলে এএফপির একজন প্রতিবেদক জানিয়েছেন৷ আফগানিস্তানের রাষ্ট্রপতি আশরাফ গনি বলেছেন, ‘আহতদের সম্মান জানিয়ে আমরা অনুষ্ঠানগুলো স্থগিত করেছি কিন্তু আমরা অবশ্যই এর প্রতিশোধ নেব। আমরা প্রতি ফোঁটা রক্তের বদলা নেব।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *