ত্রিপক্ষীয় বৈঠকে সিরিয়ার সার্বভৌমত্ব রক্ষায় একমত রুহানি-পুতিন-এরদোগান

ইউরোপ লিড নিউজ

আঙ্কারা, তুরস্ক- সিরিয়ার সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা রক্ষা করার ব্যাপারে একমত হয়েছে ইরান, রাশিয়া ও তুরস্ক। তুরস্কের রাজধানী ইস্তাম্বুলে সোমবার রাতে সিরিয়া বিষয় শীর্ষ সম্মেলনে ঐক্যমত পোষণ করেন ইরানি প্রেসিডেন্ট ড. হাসান রুহানি, তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান ও রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন। এটি ছিল তিন প্রেসিডেন্টের সিরিয়া বিষয়ক পঞ্চম শীর্ষ সম্মেলন। খবর এএফপির।

সোমবার রাতে প্রকাশিত ১৪ ধারাবিশিষ্ট বিবৃতিতে সিরিয়ার পুনর্গঠনে সহযোগিতা করা এবং দেশটির জনগণের জন্য মানবিক ত্রাণ পাঠানোর ক্ষেত্রে আরো বেশি সক্রিয় হওয়ার জন্য আন্তর্জাতিক সমাজের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।

ইরানের প্রেসিডেন্ট হাসান রুহানি, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোগান শিগগিরই সিরিয়া বিষয়ে ইরানের রাজধানী তেহরানে পরবর্তী বৈঠকে বসার আগ্রহ প্রকাশ করেন। বিবৃতিতে তারা বলেন, সিরিয়ার স্বাধীনতা, সার্বভৌমত্ব ও অখণ্ডতা রক্ষা করার কাজে জাতিসংঘ ঘোষণা মেনে চলতে হবে।

তিন প্রেসিডেন্ট সিরিয়ায় ইহুদিবাদী ইসরাইলের ধারাবাহিক হামলাকে দেশটির সার্বভৌমত্বের ওপর আঘাত হিসেবে অভিহিত করে বলেন, ইসরাইলের এই অস্থিতিশীলতা সৃষ্টিকারী পদক্ষেপের ফলে মধ্যপ্রাচ্যে উত্তেজনা তীব্রতর হবে। ইরান, তুরস্ক ও রাশিয়ার শীর্ষ নেতারা বলেন, একমাত্র পরস্পরের স্বাধীনতা ও সার্বভৌমত্বের প্রতি সম্মান প্রদর্শনের মাধ্যমে মধ্যপ্রাচ্যে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা প্রতিষ্ঠিত হতে পারে।

বিবৃতিতে বলা হয়, সামরিক উপায়ে সিরিয়া সংকটের সমাধান করা যাবে না বরং দেশটির সকল পক্ষের মধ্যে রাজনৈতিক আলোচনার মাধ্যমে সেদেশের জন্য একটি সুষ্ঠু সমাধান বের করতে হবে; আর এ কাজে জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের ২২৫৪ নম্বর প্রস্তাব গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে পারে।

তিন প্রেসিডেন্টের স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে আরো যেসব গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উল্লেখ রয়েছে সেগুলো হচ্ছে, সিরিয়ার সংবিধান প্রণয়নের চলমান প্রক্রিয়া ও জাতিসংঘের সিরিয়া বিষয়ক বিশেষ দূতের বিভিন্ন উদ্যোগের প্রতি সমর্থন, সিরিয়ার সব নাগরিকের কাছে মানবিক ত্রাণ পৌঁছে দেয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করা এবং বিভিন্ন দেশে অবস্থানরত সিরীয় শরণার্থীদের নিরাপদে স্বদেশ প্রত্যাবর্তনের ব্যবস্থা করা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *