রাজনীতির বাইরের মানুষ কায়েস সাইদ তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্ট

আফ্রিকা লিড্স অব দ্যা ওয়ার্ল্ড

তিউনিস, তিউনিশিয়া- তিউনিসিয়ার প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে চমক সৃষ্টি করলেন রাজনীতির বাইরের মানুষ বলে পরিচিত কায়েস সাইদ। চলতি বছরের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে তাকে প্রেসিডেন্ট হিসেবে ঘোষণা করেছে দেশটির নির্বাচন কমিশন। দেশটির ৬ষ্ঠ প্রেসিডেন্ট হতে যাচ্ছেন আইনের এই শিক্ষক। খবর বিবিসি ও আলজাজিরার।

আরব বসন্তের পর এ বছর দেশটিতে দ্বিতীয়বারে মতো অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গত রোববার দুই ধাপের এই প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের শেষ ধাপে (রান-অফ) ভোটগ্রহণ সম্পন্ন হয়। অকসরপ্রাপ্ত এই অধ্যাপক ৭৬ শতাংশ ভোট পেয়েছেন, যার বিপরীতে শক্তিশালী প্রতিদ্বন্ধী নাবিল কারুই পেয়েছেন ২৭.৫ ভাগেরও কম ভোট।

স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নেন নেন অধ্যাপক কাইস সাইদ। এদিকে সাইদের এই ভূমিধস জয়কে স্বাগত জানিয়েছে দেশটির মধ্যপন্থী ইসলামি দল এনাহদা। দলটি এক বিবৃতিতে জানায়, ‘তার জয় গণতন্ত্রকে সুসংহত করা এবং বিপ্লবের লক্ষ্য অর্জনের দিকে নতুন পদক্ষেপ।’

এর আগে গত ১৫ সেপ্টেম্বর প্রথম দফা প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের ভোট অনুষ্ঠিত হয়। প্রথম দফায় কোনো প্রার্থী এককভাবে ৫০ শতাংশ ভোট না পাওয়ায় রোববার শীর্ষ দুই প্রার্থীর মধ্যে দ্বিতীয় দফায় ভোট গ্রহণ চলে।

প্রথম দফায় ৬১ বছর বয়সী কায়েস সাইদ ১৮. ৪ শতাংশ ও অন্যতম প্রভাবশালী মিডিয়া ব্যক্তিত্ব এবং নতুন রাজনৈতিক দল কালব তিউনিস পার্টির প্রধান নাবিল কারুই ১৫.৬ শতাংশ ভোট পান।২৬ জন প্রার্থীর মধ্যে সাইদ ও কারুই শীর্ষে অবস্থানে থাকায় দ্বিতীয় দফায় তারা দুজন প্রেসিডেন্ট পদের জন্য প্রতিদ্বন্ধিতা করেন।

দ্বিতীয় দফা নির্বাচনের চার দিন আগে জেল থেকে মুক্তি পান ৫৬ বছর বয়সী নাবিল কারুই। অর্থপাচার ও কর ফাঁকির অভিযোগে গ্রেপ্তার থাকায় জেল থেকেই প্রথম দফা নির্বাচনে অংশ নেন তিনি।

উত্তর আফ্রিকার দেশটির প্রত্যেকটি আসনই জিতে নিয়েছেন সাইদ। সর্বনিম্ন ৫৬.৭ শতাংশ ভোট পড়া জেনদুবা থেকে সর্বোচ্চ ৯৭.৯ শতাংশ ভোট পড়া তাতাওইন অঞ্চল পর্যন্ত সব জায়গায় এই অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষকের জয়জয়কার। বুথ ফেরত জরিপ প্রকাশের পর রাজধানী তিউনিসে সমর্থকদের উদ্দেশে নিজের অনুভূতিতে নতুন প্রজন্মকে ধন্যবাদ জানান অধ্যাপক সাইদ। তিনি বলেন, ‘তিউনিসিয়ার ইতিহাসে নতুন একটি অধ্যায় সৃষ্টি করল তরুণ প্রজন্ম।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *