সিরিয়া ইস্যুতে লেখা ট্রাম্পের চিঠি ‘ময়লার ঝুড়ি’তে ফেলেছেন এরদোগান

আমেরিকা ইউরোপ মধ্যপ্রাচ্য লিড নিউজ

আঙ্কারা, তুরস্ক- সিরিয়ায় তুরস্কের অভিযান থামাতে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের লেখা একটি চিঠি প্রত্যাখ্যান করেছেন তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়্যেব এরদোয়ান। চিঠি পরে ‘ময়লার ঝুড়ি’তে ফেলে দেন তিনি। সিরিয়া থেকে যুক্তরাষ্ট্রের সেনা প্রত্যাহারের পর ৯ অক্টোবর লেখা চিঠিতে ট্রাম্প এরদোয়ানকে বলেছেন, ওতোটা কঠিন হবেন না, বোকার মতো আচরণ করবেন না। তুর্কি প্রেসিডেন্টের অফিসের বরাত দিয়ে বৃহস্পতিবার বিবিসি এ খবর জানিয়েছে।

সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে কুর্দি নেতৃত্বাধীন বাহিনীর বিরুদ্ধে সামরিক অভিযান না চালানোর জন্য তুরস্কের প্রতি আহ্বান জানান ট্রাম্প। তবে এরদোয়ান তার অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করছেন। যুক্তরাষ্ট্রের ভাইস প্রেসিডেন্ট মাইক পেন্স তুরস্কে অবস্থান করছেন যুদ্ধবিরতির জন্য চাপ দিতে।

গত ৬ অক্টোবর এরদোয়ানের সঙ্গে কথা বলে ট্রাম্প জানিয়েছিলেন সিরিয়ার উত্তর-পূর্বাঞ্চল থেকে সেনা প্রত্যাহার করে নেয়া হবে। বিরোধী ও সমালোচকরাদের দাবি, গত সপ্তাহে ওই অঞ্চল থেকে যুক্তরাষ্ট্র তাদের সেনা সরিয়ে নেয়ার ঘোষণা দেয়ার মধ্য দিয়ে তুরস্ককে হামলার ‘সবুজ সংকেত’দিয়েছে। বুধবার এক সংবাদ সম্মেলনে ট্রাম্প বলেন, ‘আমি তাদের সবুজ সংকেত দেইনি। কেউ যদি চিঠিটা পড়ে থাকেন তবে নিশ্চয়েই বুঝতে পেরেছেন। তার সঙ্গে আলোচনার পরই আমি এই চিঠিটি লিখি।’

চিঠিতে ট্রাম্প বলেন, আপনি যদি এখন সঠিক ও মানবিক আচরণ করেন তবে ইতিহাস আপনাকে মনে রাখবে। আর যদি ভালো কাজ না হয় আপনাকে শয়তান হিসেবে দেখবে। সেনা প্রত্যাহারের একদিন পরেই এই চিঠি পাঠানো হয় বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম বাজফিড।

চিঠিটি প্রথম পান ফক্স বিজনেসের সাংবাদিক ট্রিশ রিগ্যান। এরপর হোয়াইট হাউসও এর সত্যতা নিশ্চিত করে।  ট্রাম্প হুঁশিয়ার করেছেন, ‘আপনি নিশ্চয়ই হাজার হাজার মানুষকে হত্যা করতে চাইবেন না। আর আমিও চাই না তুরস্কের অর্থনীতি ধসে পড়ুক। আমি আপনার কিছু সমস্যা সমাধানে অনেক পরিশ্রম করেছি। বিশ্বকে হতাশ করবেন না। আপনি নিশ্চয়ই ভালো একটা চুক্তি করতে পারেন। ওতোটা কঠোর হবেন না। বোকার মতো আচরণ করবেন না।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *