নওয়াজ শরীফকে মারতে পোলোনিয়াম বিষ দেয়া হচ্ছে, দাবি পাক নেতার

পাকিস্তান পূর্ব এশিয়া

(ইসলামাবাদ, পাকিস্তান) পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফকে আস্তে আস্তে হত্যা করতে তাকে পোলোনিয়াম বিষ দেয়া হচ্ছে বলে দাবি করেছেন সরকারবিরোধী দল মুত্তাহিদা কওমি মুভমেন্ট’রনেতা আলতাফ হুসেইন। তিনি বলেছেন, এই বিষই ফিলিস্তিনের সাবেক প্রেসিডেন্ট ইয়াসির আরাফাতকে দেয়া হয়েছিল। ২০০৪ সালে তার মৃত্যু হয়।

ডন জানায়, স্বাস্থ্যের আরও অবনতি হয়েছে পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরীফের। জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে তিন তিনবারের এই প্রধানমন্ত্রী। ১৬ দিন ধরে হাসপাতালে থাকলেও স্বাস্থ্যের উন্নতি না হওয়ায় তাকে হাসপাতাল থেকে বাসায় পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে। বুধবার লাহোরে নিজ বাসভবন জাতি ওমরায় পৌছান তিনি। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন মেয়ে মরিয়ম নওয়াজ, মা শামিমা আক্তার, ছোট ভাই শাহবাজ শরিফ ও পরিবারের অন্যান্য সদস্য।

এদিনই বহুল আলোচিত চৌধুরী সুগার মিল দুর্নীতি মামলায় সাত বছরের দণ্ডপ্রাপ্ত কারাবন্দি মরিয়মকে জামিনে মুক্তি পান। নওয়াজের বাসভবনেই আইসিইউ প্রতিষ্ঠা করা হয়েছে। গঠন করা হয়েছে বিশেষ মেডিকেল টিম। পারিবারিক চিকিৎসক আদখান খানের নেতৃত্বে একটি দল ২৪ ঘণ্টার তার সেবায় নিয়োজিত থাকবেন।

গত মাসে হঠাৎ করে অসুস্থ হয়ে পড়েন কারাবন্দি ৬৯ বছর বয়সী নওয়াজ। তারপরেই তাকে লাহোরের একটি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। স্বাস্থ্যের আরও অবনতি হলে ২২ অক্টোবর কারাগার তাকে লাহোরের সার্ভিসেস ইনস্টিটিউট অব মেডিকেল সাইন্স হাসপাতালে নেয়া হয়।

সেই সময়ই নওয়াজের ছেলে হুসেইন নওয়াজ আশঙ্কা প্রকাশ করে জানান, তার বাবাকে হয়তো কারাগারে বিষ প্রয়োগ করা হয়েছে। সে কারণেই তার শারীরিক অবস্থার অবনতি হয়েছে।

এরপর নওয়াজকে বিষ দেয়া নিয়ে গত ২ নভেম্বর কথা বলেন আলতাফ হুসেইন। এক টুইটার বার্তায় তিনি বলেন, ‌নওয়াজ শরীফের দেহে রক্তের প্লাটিলেট কমে গেছে। এর আসল কারণ পোলোনিয়াম বিষ। শত্রুর বিনাশে এর ব্যবহার হয়। এটা আস্তে আস্তে কাজ করে এবং রক্তের প্লাটিলেট ধ্বংস করে। শুধু বিশেষজ্ঞরাই এটা শনাক্ত করতে পারবে।’ আগের পোস্টের প্রেক্ষিতে  বিভিন্ন প্রশ্ন তুলে বৃহস্পতিবার এক টুইটার বার্তায় আলতাফ হুসেইন ‘পোলোনিয়াম: এ পারফেক্ট পয়জন’ শীর্ষক একটি গবেষণা প্রবন্ধ পোস্ট করেন।

সরকারি চিকিৎসকদের সমন্বয়ে গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান বলেছেন, তিনি মারাত্মক জেনেটিক সমস্যায় ভুগছেন। মঙ্গলবার তাকে মেডিক্যাল সিটি হাসপাতালে স্থানান্তরের সিদ্ধান্ত নেয়া হয়। কিন্তু মেয়ে মরিয়ম নওয়াজের জামিন আটকে যাওয়ায় তিনি হাসপাতাল ছাড়তে অস্বীকৃতি জানান।

নওয়াজ শরীফের রাজনৈতিক দল পাকিস্তান মুসলিম লীগ-নওয়াজের (পিএমএল-এন) মুখপাত্র মরিয়ম আওরঙ্গজেব এক বিবৃতিতে বলেন, সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীর চিকিৎসার জন্য তার বাসভবনে আইসিইউ স্থাপন করা হয়েছে। তিনি বলেন, মেডিক্যাল ঝুঁকির কারণে চিকিৎসকরা নওয়াজ শরীফের বাসায় বিশেষ মেডিক্যাল ইউনিট বসানো হয়েছে। নওয়াজ শরীফের ব্যক্তিগত চিকিৎসক আদনান খানের তত্ত্বাবধানে বাসভবনে ওই আইসিইউ স্থাপন করা হয়। এই আইসিইউ ইউনিটের একজন চিকিৎসক সার্বক্ষণিক থাকবেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *