অযোধ্যায় ৫ একর জমিতে মসজিদ নয় স্কুল চান নায়ক সালমান খানের বাবা

ভারত

(নয়াদিল্লি, ভারত) অযোধ্যায় মুসলিমদের জন্য পাঁচ একর জমিতে মসজিদ নয়, স্কুল চান বলিউড তারকা সালমান খানের বাবা প্রখ্যাত চিত্রনাট্যকার সেলিম খান। অযোধ্যা মামলার এ রায় নিয়ে ইতিমধ্যেই নিজেদের মতামত জানিয়েছেন তারকারা। এবার প্রতিক্রিয়া জানালেন সেলিম খানও। তার মতে, মসজিদের প্রয়োজন নেই মুসলিমদের। তার বদলে ওই জমিতে স্কুল অথবা কলেজ তৈরি হলে অনেক সমস্যার সুরাহা হবে। খবর এনডিটিভির।

শনিবার সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, ‘ইসলাম ভালবাসা এবং ক্ষমার কথা বলে। এতদিনে অযোধ্যা বিতর্ক শেষ হল । এবার ওই দুই নীতি মেনে চলতে হবে। অতীত আঁকড়ে পড়ে থেকে লাভ নেই। পুরনো সব কিছু ভুলে এগিয়ে যেতে হবে।’

মসজিদের বাইরেও ভারতীয় মুসলিমদের আরো অনেক সমস্যা আছে উল্লেখ করে সেগুলো নিয়েই  এবার ভাবা উচিত বলেও মনে করেন সেলিম খান। তার কথায়, ‘অযোধ্যা নিয়ে আর বিতর্কের দরকার নেই। তার চেয়ে দৈনন্দিন জীবনের সমস্যা সমাধানের চেষ্টা করা উচিত।’

সালমান খানের বাবা বলেন, ভাল স্কুল ও হাসপাতাল প্রয়োজন। ওই পাঁচ একর জমিতে কলেজ নির্মাণ করা হোক। নামাজ তো যে কোনো জায়গায়ই পড়া যায়। তাই মসজিদ দরকার নেই বরং ভাল স্কুল প্রয়োজন। দেশের ২২ কোটি মুসলমানের ভাল শিক্ষা প্রয়োজন। তাহলে অনেক সমস্যা দূর হবে।

কয়েক দশকের প্রতীক্ষার অবসান ঘটিয়ে বাবরি মসজিদ-রাম জন্মভূমি নিয়ে করা ঐতিহাসিক অযোধ্যা মামলার রায় শনিবার দিয়েছে ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। রায়ে বলা হয়েছে, বিতর্কিত পৌনে ৩ একরের ওই ভূমিতে মন্দির হবে, তবে তা হবে একটি ট্রাস্টের অধীনে। আর মুসলিমদের জন্য মসজিদ তৈরি করতে কাছাকাছি অন্য স্থানে ৫ একর জমি দিতে হবে সরকারকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *