অস্ত্র রফতানি বাড়াচ্ছে পাকিস্তান, বছরে টার্গেট ১০০ কোটি ডলার

পূর্ব এশিয়া

(ইসলামাবাদ, পাকিস্তান) ক্রমেই অস্ত্র রফতানি বাড়াচ্ছে পরমাণু শক্তিধর দেশ পাকিস্তান। এখন থেকে প্রতি বছর এক বিলিয়ন ডলার (১০০ কোটি ডলার) মূল্যের প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম বিক্রির লক্ষ্য নির্ধারণ করেছে দেশটি। পাকিস্তান সরকারের এক সিনিয়র কর্মকর্তা জানিয়েছেন, চলতি বছরের জুন পর্যন্ত অর্থবছরে অস্ত্র রফতানি ২১ কোটি ডলার ছাড়িয়ে গেছে। দুই বছর আগের চেয়ে এই রফতানি ১০০ মিলিয়ন ডলার বেড়েছে। খবর নিক্কিই এশিয়ান রিভিউ।

পাকিস্তানের অস্ত্র উৎপাদনে চীন গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। চীন ও পাকিস্তান মিলে জেএফ-১৭ থান্ডার জঙ্গি বিমান উৎপাদন করে। এ ব্যাপারে পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর সাবেক কমান্ডার ও প্রতিরক্ষা বিশ্লেষক লে. জেনারেল (অব.) তালাত মাসুদ বলেন, জেএফ-১৭ পাকিস্তানের আত্মনির্ভরতার ভিত্তি তৈরী করেছে।

পাকিস্তানকে ট্যাঙ্ক তৈরীতেও সহায়তা করেছে চীন। এছাড়া জেএফ-১৭ প্রকল্পের মাধ্যমে পাকস্তিানের বিমান বাহিনীকেও সহায়তা করেছ চীন। পাকিস্তান নৌবাহিনী তার রণতরী ও সাবমেরিন নির্মাণেও চীনের কাছ থেকে সাহায্য পেয়েছে।

পরিচয় প্রকাশ না করার শর্তে আরেক অফিসার বলেন, ৫ বছর আগে পাকিস্তানের অস্ত্র রফতানি ছিল ৬ কোটি ডলার। ওই কর্মকর্তারা আরও বলেন, ঊর্ধ্বমুখী এই ধারা অস্ত্রে আত্মনির্ভরতার জন্য পাকিস্তানের ব্যাপকতর উদ্যাগই প্রতিফলিত হয়েছে। তারা অবশ্য, এ ব্যাপারে বিস্তারিত কিছু বলতে অস্বীকৃতি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *