ঝিনাইদহে বাজারে উঠতে শুরু করেছে নতুন মুড়ি পেঁয়াজ

বাংলাদেশ

(ঝিনাইদহ, বাংলাদেশ) ঝিনাইদহের শৈলকূপা উপজেলার বিভিন্ন বাজারে উঠতে শুরু করেছে নতুন মুড়ি পেঁয়াজ। এতে কমতে শুরু করেছে পুরাতন পেঁয়াজের বাজার দর। চাষীরা বলছেন, একদিকে যেমন ফলন ভালো অন্যদিকে বাড়তি বাজার চাহিদার কারণে দামও বেশি। এতে লাভবান হচ্ছেন শৈলকূপা উপজেলার পেঁয়াজ কৃষক। খবর ঝিনাইদহের চোখ’র

পেঁয়াজের ক্ষেতে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন অত্র অঞ্চলের কৃষক। পাতাসহ মুড়ি পেঁয়াজ তুলতে ভোর থেকে ব্যস্ত চাষীরা। বেশ কয়েকদিন ধরে পেঁয়াজের চড়া বাজারদরের কারণে এবার আগেভাগেই তুলতে শুরু করেছেন পাতাসহ পেঁয়াজ। এতে নতুন পেঁয়াজের যেমন বেশি দাম পাচ্ছেন চাষীরা। তেমনি তা পুরান পেঁয়াজের ঝাঁজেও লাগাম পরতে শুরু করেছে। কমছে পেঁয়াজের বাজার দর।

শৈলকূপা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সঞ্জয় কুন্ডু জানান, এবছর এ উপজেলায় ৭৫ হেক্টর জমিতে মুড়ি পেঁয়াজের চাষ করা হয়েছে । পেঁয়াজের ফলনও ভালো হয়েছে। পেঁয়াজ রোপনের পর তুলতে সময় লাগে ৪৫ দিন। এছাড়াও শৈলকূপা উপজেলাতে এ বছর ৬’হাজার ৩’শত ৫০ হেক্টর জমিতে পেঁয়াজ চাষের লক্ষ্যমাত্রা নির্ধারণ করা হয়েছে।

পেঁয়াজের বাজারে অস্থিরতা চলছে গত কয়েক মাস ধরেই। এর মধ্যেই মিশর, তুরস্ক ও চীনের পেঁয়াজের দাম ৫৫-৬০ টাকা নির্ধারণ করে দিয়েছে শ্যামবাজার বণিক সমিতি। এছাড়া মিয়ানমারের পেঁয়াজ প্রতিকেজি ৮০ থেকে ৮৫ টাকায় বিক্রি করা হবে ঘোষণা দিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। তবে এই মূল্য শুধু পাইকারি বাজারের ক্ষেত্রেই প্রযোজ্য হবে। সেখান থেকে কিনে নিয়ে খুচরা বাজারে বিক্রির সময় মূল্য যেন বেশি বেড়ে না যায় সেজন্য নজরদারি করবে আইনশৃঙ্খলা রক্ষা বাহিনী।

শুক্রবার থেকে শ্যামবাজার বণিক সমিতির বেঁধে দেয়া দামে পাইকারি পেঁয়াজ বিক্রি করা হবে বলে জানান শ্যামবাজারের ব্যবসায়ীরা। সরকারের নির্দেশনা অনুযায়ী এটি করা হবে বলে জানান তারা। বাস্তবে আজ শুক্রবার রাজধানীর বাজার ঘুরে পেঁয়াজের দাম সামান্য কমার লক্ষণ দেখা গেছে। তবে তা পর্যাপ্ত নয় বলে জানিয়েছেন ক্রেতারা। ক্রেতাদের প্রতিকেজি পেঁয়াজ ক্রেতাদের কিনতে দেখা গেছে ১২০-১৩০ টাকা দামে। তবে গত কয়েকদিনে দেড়শ টাকা পর্যন্ত বিক্রি হতে দেখা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *