কৃষিতে দেউলিয়া হয়ে ভারতে প্রতিদিন ৩১ কৃষকের আত্মহত্যা

ভারত লিড নিউজ

(নয়াদিল্লি, ভারত) ভারতে প্রতিদিন ৩১ জন কৃষক আত্মহত্যা করছেন। সেই হিসাবে প্রতি ৪৬ মিনিটে একটা আত্মহত্যার ঘটছে। দেশটির ন্যাশানাল ক্রাইম রেকর্ডস ব্যুরোর (এনসিআরবি)এক রিপোর্টে আত্মহত্যার এই ভীতিকর তথ্য তুলে ধরা হয়েছে। তিন বছর পর সোমবার প্রকাশিত রিপোর্টে সংস্থাটি জানিয়েছে, ২০১৬ সালে ভারতে ১১ হাজার ৩৭৯ জন কৃষক আত্মহত্যা করে। খবর কলকাতা টইমসের।

২০১৫ সালে সর্বশেষ প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছিল। প্রতিবেদনের তথ্য অনুসারে ২০১৪ সালে দেশে কৃষক আত্মহত্যার সংখ্যা ছিল ১২ হাজার ৩৬০ জন। ২০১৫ সালে যার সংখ্যা ছিল ১২ হাজার ৬০২ জন। প্রদত্ত তথ্য অনুযায়ী ৩০ থেকে ৬০ বছর বয়স্ক পুরুষেরাই সবচেয়ে বেশি আত্মহত্যা করেছেন। স্বাভাবিক ভাবে এই বয়সের মানুষের কাঁধেই পরিবারের দায়িত্ব থাকে। নারী চাষীর আত্মহত্যার হার ৮.৬ শতাংশ।

এনসিআরবি প্রদত্ত তথ্য অনুসারে চাষীদের আত্মহত্যার কারণগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বড় কারণ, চাষ করতে গিয়ে দেউলিয়া হয়ে যাওয়া। মোট আত্মহত্যার ৩৮.৭ শতাংশ ঘটে এ কারণেই। এরপরেই রয়েছে চাষ সংক্রান্ত সমস্যায় আত্মহত্যা ১৯.৫ শতাংশ। পারিবারিক সমস্যার কারণে ১১.৭ শতাংশ এবং অসুস্থতা ১০.৫ শতাংশ । সামগ্রিকভাবে কৃষক আত্মহত্যা প্রায় ২১% কম হলেও কৃষিকাজে নিযুক্ত শ্রমিকদের আত্মহত্যার হার ১০ শতাংশ বেড়েছে।

প্রতিবেদন মতে, কৃষক আত্মহত্যায় শীর্ষে রয়েছে ভারতের সবচেয়ে ধনী ও সমৃদ্ধ রাজ্য মহারাষ্ট্র। ২০১৩ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে ১৫,৩৫৬ জন চাষী আত্মহত্যা করেছেনে এই রাজ্যে। চলতি বছরের ১লা জানুয়ারি থেকে ২৮শে ফেব্রুয়ারির মধ্যে ৩৯৬ জন চাষী আত্মহত্যা করেন।

কৃষকদের আত্মহত্যায় দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কর্ণাটক। ২০১৬ সালে ২ হাজার ০৭৯ জন চাষী এই রাজ্যে আত্মহত্যা করেছেন। ২০১৫ সালে এই আত্মহত্যার সংখ্যা ছিল ১ হাজার ৫৬৯ । অথচ প্রতিবেশী রাষ্ট্র তেলেঙ্গানায় ২০১৬ সালে কৃষক আত্মহত্যার সংখ্যা ৬৪৫। যা ২০১৪ এবং ২০১৫ সালের তুলনায় অর্ধেকেরও কম। তেলেঙ্গানায় ২০১৪ সালে ১ হাজার ৩৪৭ জন কৃষক আত্মহত্যার শিকার হয়েছিল এবং ২০১৫ সালে ১ হাজার ৪০০ জন।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য ২০১৬ সালে কৃষক আত্মহত্যার কোনো তথ্যই সরবরাহ করেনি এনসিআরবিকে। একইভাবে ২০১৫ সালেও এই রাজ্য কোনো তথ্যই প্রকাশ করেনি। যদিও ২০১৪ সালে এরাজ্যে ২৩০ জন কৃষক আত্মহত্যা করেছিল। এখন পর্যন্ত মহারাষ্ট্রে এই বছরের ১লা জানুয়ারি থেকে ২৮শে ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত হওয়া ৩৯৬ টি আত্মঘাতী মামলার মধ্যে ভারত সরকার ১০২ জন পরিবারকে এক্সগ্রাসিয়া দিয়েছে বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *