বলিভিয়া সংকট: নিজেকে প্রেসিডেন্ট প্রেসিডেন্ট ঘোষণা বিরোধীদলীয় সিনেটরের

আমেরিকা

(লাপাজ, বলিভিয়া) পদত্যাগের পর মেক্সিকোতে রাজনৈতিক আশ্রয় নিয়েছেন বলিভিয়ার প্রেসিডেন্ট ইভো মোরালেস। দক্ষিণ আমেরিকার দেশটিতে নেতৃত্বশুন্যতার মধ্যে নিজেকে অন্তর্বর্তীকালীন প্রেসিডেন্ট ঘোষণা করেছেন বিরোধীদলীয় সিনেটর জেনিন অ্যানেজ। মঙ্গলবার পার্লামেন্টের এক অধিবেশনে এই ঘোষণা দেন তিনি। খুব শিগগির একটি জাতীয় নির্বাচন দেয়ার কথাও ঘোষণা করেন বিরোধীদলীয় এ নেত্রী। খবর বিবিসি ও রয়টার্সের।

এর প্রতিবাদে ইভো মোরালেসের দলের এমপিরা পার্লামেন্ট বয়কট করেন। তাদের দাবি এ সিদ্ধান্ত নেয়ার মতো সংসদের কোরাম পূর্ণ হয়নি। তাই বিরোধীদলীয় এ নেত্রী এ হঠকারী সিদ্ধান্ত নিতে পারেন না। ইভো মোরালেসও কট্টর ডানপন্থী এ নেত্রীর নিজেকে প্রেসিডেন্ট ঘোষণার ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

পদত্যাগের একদিনের মাথায় মঙ্গলবার ইভো মোরালেস মেক্সিকোর একটি রাষ্ট্রীয় উড়োজাহাজে করে লাতিন আমেরিকার দেশটির উদ্দেশে পাড়ি জমান। বলিভিয়ার পররাষ্ট্রমন্ত্রী মারসেলো অ্যাবরার্ড এক টুইটবার্তায় জানিয়েছেন, ইভো মোরালেস মেক্সিকোর একটি বিমানবাহিনীর উড়োজাহাজে করে দেশ ছেড়েছেন।

মেক্সিকো সরকারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, মানবিক দিক বিবেচনা করে ইভো মোরালেসের রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদনে সাড়া দিয়েছে মেক্সিকো।এর আগে ইভো মোরালেস তার সমর্থকদের উদ্দেশ্যে বলেছিলেন, যে ‘কালো শক্তি’ তাকে ক্ষমতাচ্যুত করেছে, তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধভাবে রুখে দাঁড়াতে হবে।

এর পরই বলিভিয়ায় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে কমপক্ষে ২০ জন মোরালেস সমর্থক আহত হয়েছেন। ইভো মোরালেস বলিভিয়ার প্রথম আদিবাসী প্রেসিডেন্ট হিসেবে ২০০৬ সালে নির্বাচিত হয়ে দুই মেয়াদে ক্ষমতায় ছিলেন।

সম্প্রতি ত্রুটিপূর্ণ নির্বাচনের অভিযোগে দেশটির সেনাপ্রধান জনসমক্ষে তাকে পদত্যাগ করার আহ্বান জানান। পুলিশ ও সেনাবাহিনীর যৌথ চাপের মুখে পদত্যাগ করতে বাধ্য হন তিনি। ইভো মোরালেসের পদত্যাগের পর সিনেটের সহকারী প্রধান অন্তর্বর্তীকালীন সরকারের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *