পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশি বন্দিদের জন্য তৈরি হচ্ছে বন্দিশিবির

ভারত

পশ্চিমবঙ্গ, ভারত- ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বাংলাদেশি বন্দিদের জন্য বন্দিশিবির (ডিটেনশন সেন্টার) তৈরি হচ্ছে। শাস্তির মেয়াদ পূর্ণ হওয়া যে সব বন্দিকে নানা জটিলতার কারণে ফেরত পাঠানো যাচ্ছে না শুধুমাত্র সেই সব বন্দিদের রাখা হবে এই আটককেন্দ্রে। এখন দক্ষিণবঙ্গের জন্য দমদম সেন্ট্রাল জেল এবং উত্তরবঙ্গের ক্ষেত্রে বহরমপুর সেন্ট্রাল জেলে অস্থায়ী বন্দিশিবির রয়েছে। অস্থায়ী বন্দিশিবিরে বাংলাদেশি এবং অন্য বিদেশিদের একসঙ্গে রাখা হয়েছে। মানব জমিন এ খবর দিয়েছে।

পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের কারা কর্তৃপক্ষ জানিয়েছেন, এনআরসি বা নাগরিক পঞ্জিকে ঘিরে যে ডিটেনশন ক্যাম্প বা অনাগরিক শিবিরের পরিকল্পনা চলছে, জানখালাস বন্দিদের এই সেন্টারের সঙ্গে তার কোনো সম্পর্ক নেই। অনেক আগেই এই ডিটেনশন সেন্টার তৈরির পরিকল্পনা করা হয়েছে। রাজ্য সরকারের পরিকল্পনা অনুযায়ী দুটি ডিটেনশন সেন্টার তৈরি করা হবে। একটি হবে বাংলাদেশিদের জন্য। অন্য সেন্টারে রাখা হবে দক্ষিণ আফ্রিকা, নাইজেরিয়া, লাইবেরিয়া, জিম্বাবোয়ে, পাকিস্তান, মায়ানমারের মতো দেশের খালাস বন্দিদের।

কারা কর্মকর্তাদের মতে, বাংলাদেশিদের ভাষা ও খাদ্যাভাসের সঙ্গে অন্যান্য বিদেশির ভাষা ও খাদ্যাভ্যাসের মিল নেই। তাই দুটি শিবির তৈরি হলে দুই পক্ষের সুবিধা হবে। সেখান থেকেই পৃথক শিবির তৈরির ভাবনা। তবে বাংলাদেশিদের জন্য ডিটেনশন সেন্টারের জন্য সীমান্তের কাছাকাছি উত্তর ২৪ পরগনার বনগাঁয় বন্দিশিবিরের জন্য অনেক দিন আগেই জমি চিহ্নিত করা হলেও বতর্মানে সেই জমি নিয়ে জটিলতার কারণে সেই ডিটেনশন সেন্টার তৈরির কাজ আপাতত আটকে রয়েছে। তবে অন্য বিদেশিদের জন্য কলকাতার নিউটাউনে তিন একর জমির উপরে গড়ে তোলা হবে ডিটেনশন সেন্টারটি। এর জন্য জমি চিহ্নিত করার কাজ সম্পূর্ণ হয়ে গিয়েছে বলে জানা গেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *