শ্রীলঙ্কায় পাঁচ বছর পর ক্ষমতায় ফিরল রাজাপাকসে পরিবার

পূর্ব এশিয়া লিড নিউজ

(কলম্বো, শ্রীলঙ্কা) শ্রীলঙ্কায় পাঁচ বছর পর ফের ক্ষমতায় আসছে রাজাপাকসে পরিবার। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রাথমিক ফলাফলে এগিয়ে রয়েছেন দেশটির সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী গোতাবায়া রাজাপাকসে। তিনি সাবেক প্রেসিডেন্ট মাহিন্দা রাজাপাকসের ছোটভাই। চীন-ঘনিষ্ঠ এই প্রার্থী এরই মধ্যে নিজের জয় ঘোষণা করেছেন। প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী ক্ষমতাসীন ইউনাইটেড ন্যাশনাল পার্টির (ইউএনপি) প্রার্থী সাজিথ প্রেমাদাসা পরাজয় স্বীকার করেছেন। তবে নির্বাচনি কর্তৃপক্ষ এখনও আনুষ্ঠানিক ফলাফল ঘোষণা করেনি। খবর এনডিটিভি, ইন্ডিয়া টুডের।

২০০৫ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় ছিলেন মাহিন্দা রাজাপাকসে। দশ বছর আগে ২০০৯ সালে তামিল বিদ্রোহীদের নৃশংসভাবে দমন করেন গোতাবায়া রাজাপাকসে। তার বিরুদ্ধে লিবারেশন টাইগারস অব তামিল ইলম (এলটিটিআই) গেরিলাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে মানবাধিকার লঙ্ঘনের অভিযোগ আছে। নিরাপত্তা বাহিনীর একটি অংশ তার নির্দেশে সাদা ভ্যানে চড়ে রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ‘হত্যা করত’। নিজের পরিবারেই অবসরপ্রাপ্ত এই লেফটেন্যান্ট কর্নেল ‘টার্মিনেটর’ হিসেবে পরিচিত।

চলতি বছরের ২১ এপ্রিল শ্রীলঙ্কায় ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে। ধারাবাহিক বিস্ফোরণে নিহত হন অন্তত ২৫৮ জন। সন্ত্রাসী হামলার পর সমালোচনার মুখে প্রার্থী না হওয়ার সিদ্ধান্ত নেন বর্তমান প্রেসিডেন্ট মাইথ্রিপালা সিরিসেনা। এই পরিস্থিতিতে শনিবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনে লাখ লাখ মানুষ তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

শ্রীলঙ্কার নির্বাচন কমিশনের বরাত দিয়ে বিবিসি জানিয়েছে, নির্বাচনে ৮০ ভাগ ভোটার ভোট দিয়েছেন। এর মধ্যে রাজাপক্ষে ৫০ শতাংশ ভোট পেয়ে এগিয়ে রয়েছেন। প্রেমাদাসা পেয়েছেন ৪৩ ভাগ ভোট। প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে মোট ৩৫ জন প্রার্থী ছিলেন।

বিশ্লেষকরা বলেছেন, রাজাপক্ষে সংখ্যাগরিষ্ঠ সিংহলিদের ভোটে জয়ী হয়েছেন আর তামিল অধ্যুষিত উত্তরাঞ্চলে এগিয়ে রয়েছেন তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী প্রেমাদাসা। রাজাপক্ষের মুখপাত্র বলেছেন, ‘চূড়ান্ত ফলাফলে ৫৩ বা ৫৪ শতাংশ ভোট পেয়ে জয়ী হওয়ার প্রত্যাশা করছেন গোতাবায়া। আর এটা প্রকাশ্যে স্বীকার করে নিয়েছেন প্রেমাদাসা।’

প্রেমাদাবাস বলেছেন, ‘জনগণের সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান জানিয়ে শ্রীলঙ্কার সপ্তম প্রেসিডেন্ট হিসেবে নির্বাচিত হওয়ায় গোটাবায়া রাজাপক্ষেকে অভিনন্দন জানাচ্ছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘কোনও নাগরিক বা নিউ ডেমোক্র্যাটিক পার্টির কোনও সমর্থক যেন আমাকে সমর্থনের জন্য ক্ষতির শিকার না হয় এবং নির্বাচন-পরবর্তী শান্তিপূর্ণ পরিবেশ নিশ্চিত করতে রাজাপক্ষের প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি।’প্রাথমিক ফলাফলের পর এক টুইটার বার্তায় জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানিয়েছেন রাজাপক্ষে। তিনি বলেন, ‘শ্রীলঙ্কার সব অধিবাসী এই জয়ের অংশীদার।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *