একুশ বছর বয়সেই বিচারক

ভারত

মায়াঙ্ক প্রতাপ সিং। বয়স মাত্র ২১। এই বয়সের এক তরুণের সাধারণত বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাস দাপিয়ে বেড়ানোর কথা। কিন্তু রাজস্থানের এই তরুণ এরই মধ্যে বিশ্ববিদ্যালয়ের পাট চুকিয়ে বসতে যাচ্ছেন বিচারপতির আসনে। আর তাতেই রেকর্ড গড়ে ফেলেছেন জয়পুরের এই তরুণ। মায়াঙ্কই হতে যাচ্ছেন ভারতের ইতিহাসের সর্বকনিষ্ঠ বিচারপতি।

এনডিটিভিা খবরে বলা হয়, চলতি বছরের এপ্রিলে মায়াঙ্ক রাজস্থান বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আইনে স্নাতক শেষ করেন। এরপরই তিনি বিচারক নিয়োগের পরীক্ষায় বসেন। প্রথমবারের মতো এই কঠিন পরীক্ষায় বসেই বাজিমাত করেন মায়াঙ্ক। অবশ্য এক্ষেত্রে ভাগ্যও তাকে কিছুটা সহায়তা করেছে। কারণ এর আগে বিচারক নিয়োগের পরীক্ষার বয়স ছিল ২৩। চলতি বছর রাজস্থান জুডিশিয়াল সার্ভিস আইন পরিবর্তন করে বয়সসীমা ২১-এ নামিয়ে নিয়ে আসে। আর তাতেই ছিড়েছে মায়াঙ্কের ভাগ্যে শিকে। গড়তে চলেছেন ইতিহাস।

বার্তা সংস্থা এএনআইকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে মায়াঙ্ক বলেন- এই সফলতায় আমি গর্বিত। এবং এজন্য আমি আমার পরিবার, শিক্ষকবৃন্দ ও শুভাকাঙক্ষীদের অবদান স্মরণ করি। সবচেয়ে কম বয়সে বিচারক হওয়ার ব্যাপারে তিনি বলেন, ‘বয়স কমানোর কারণে পরীক্ষায় বসার সুযোগ হয়েছিল। বিচারকের দায়িত্ব সম্পর্কে তিনি বলেন, বিচারক হতে গেলে সবার আগে সৎ হতে হবে। কোনো রকম বাইরের শক্তির কাছে প্রভাবিত হলে হবে না। আমি আমার জায়গায় থেকে সব সময় সেই চেষ্টা করব।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *