লন্ডনে ইহুদী শিশুকে নির্যাতন থেকে বাঁচালেন মুসলিম নারী

ইউরোপ

(লন্ডন, যুক্তরাজ্য) লন্ডনের একটি কম্যুউটার ট্রেনে দুই ইহুদি শিশুকে মানসিকভাবে নির্যাতন করছিলেন খ্রিস্টান এক ব্যক্তি। ঘটনার আকস্মিকতায় হতভম্ব হয়ে যান বগিতে উপস্থিত অন্য সকলে। শেষে শিশুটির সাহায্যে এগিয়ে আসেন আসমা শুয়েইখ নামের একজন মুসলিম নারী। পুরো ঘটনাটির ভিডিও ধারণ করেন ক্রিস এটকিন্স নামে অন্য একজন যাত্রী। পরে ভিডিও ফুটেজ দেখে রবিবারে ওই নিপীড়নকারীকে গ্রেফতার করেছে লন্ডন পুলিশ। খবর বিবিসির।

ভিডিওতে দেখা যায়, স্কাল-ক্যাপ পরিহিত একজন লোক দুই ইহুদী শিশুকে বাইবেল থেকে অনুচ্ছেদ পাঠ করে শোনাচ্ছিলেন। এসময় লোকটি তাদের সঙ্গে অত্যন্ত উগ্রভাবে আচরণ করছিলেন। এতে শিশু দুইটি ভয়ে কান্না করছিল, কিন্তু নিপীড়ক ওই ব্যক্তি কিছুতেই দমছিলেন না।

আরও দেখা যায়, ঘটনার আকস্মিকতায় ওই বগির সকলে হতভম্ব হয়ে পুরো ঘটনাটি নীরবভাবে দেখছিলেন। কিন্তু কেউ ওই স্কাল-ক্যাপ পড়া উগ্র লোকটিকে থামাতে এগিয়ে আসার সাহস দেখাচ্ছিলেন না। অবশেষে ইহুদী শিশু দুটিকে বাঁচাতে এগিয়ে আসেন হিজাব পরিহিত একজন মুসলিম নারী। পরে ওই নারীর নাম আসমা শুয়েইখ বলে জানা গেছে।

ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড হওয়ার অল্প কিছুক্ষণের মধ্যেই ভাইরাল হয়ে যায়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে সাহসিকতার জন্য প্রশংসিত হন আসমা শুয়েইখ নামের ওই নারীকে। এ সম্পর্কে আসমা বলেন, ‘যদি সবাই এগিয়ে আসতো, তবে আমার এতটা ঝুঁকি নিয়ে প্রতিবাদ করতে হতো না। কিন্তু দুই বাচ্চার মা হিসেবে আমি বুঝি, নিপীড়িত শিশু দুটি কি অসহনীয় মূহুর্ত পার করছিল। এমন পরিস্থিতিতে আপনি কখনই বসে বসে শুধু চেয়ে থাকতে পারেন না। আমি বুঝতে পারছিলাম, তখনই কিছু একটা করতে হবে, নয়তো পরিস্থিতি নাগালের বাইরে চলে যাচ্ছিল।’

রবিবার ভিডিও ফুটেজ দেখে উগ্রবাদী ওই খ্রিস্টান নিপীড়ককে শনাক্ত করেছে লন্ডন পুলিশ। পরে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। পুলিশ ওই অপরাধীর পরিচয় গোপন রেখেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *