মহারাষ্ট্রে বিজেপির নাটকের অবসান, সরকার গঠন করছে বিরোধীরা

ভারত

(মহারাষ্ট্র, ভারত) কয়েকদিনের টানা নাটকীয়তার পর আস্থা ভোটে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পরীক্ষার একদিন আগে পদত্যাগ করলেন ভারতের মহারাষ্ট্র প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ। দ্বিতীয়বার মুখ্যমন্ত্রী পদে ৮০ ঘণ্টা কাটিয়ে মঙ্গলবার তিনি পদত্যাগের ঘোষণা দেন। এর আগেই পদত্যাগ করেন উপমুখ্যমন্ত্রী অজিত পাওয়ার। এবার এনসিপি ও কংগ্রেসের সমর্থনে সরকার গঠন করছে বিজেপির এক সময়ের মিত্র শিবসেনা। খবর এনডিটিভির।

এনসিপি নেতা শারদ পাওয়ারের ভাতিজা অজিত পাওয়ারের পল্টিবাজি হতবাক করে দিয়েছিল বিজেপিবিরোধী জোটকে। ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টির (এনসিপি) শীর্ষ রাজনীতিকরা বলছেন, তিনি ঘরে ফিরেছেন এবং সরকার গঠনের জন্য মুম্বাইয়ের ট্রিডেন্ট হোটেলে এনসিপি, কংগ্রেস ও শিবসেনার বৈঠকে যোগ দেবেন।

গত মাসের মাঝামাঝি মহারাষ্ট্রের বিধানসভা নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এতে কোনো রাজনৈতিক দলই একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা পায়নি। ফলে সরকার গঠন করা নিয়ে গত কয়েকদিন ধরে চলে টানা নাটকীয়তা। কেন্দ্রীয় ক্ষমতাসীন বিজেপি রাজ্যের অন্যান্য কয়েকটি দলের সঙ্গে জোট গঠনের চেষ্টা করলেও তা সফল হয়নি।

তবে গত শনিবার হঠাৎ করেই ন্যাশনালিস্ট কংগ্রেস পার্টির সঙ্গে জোট গঠনের ঘোষণা দেয় বিজেপি। নিজেদের সংখ্যাগরিষ্ঠ দাবি করে সরকার গঠন করতে চায় বিজেপি জোট। কিন্তু বিজেপি জোটের সরকার গঠনের দাবিকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে দেশটির সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করে কংগ্রেস, এনসিপি ও শিব সেনা। মঙ্গলবার ভারতের সুপ্রিম কোর্টের এক আদেশে বলা হয়, মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ যে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পেয়েছেন বলে দাবি করেছেন; সেটি বুধবার আদালতে প্রমাণ দিতে হবে। আদালতের এই আদেশের পর মঙ্গলবার হঠাৎ পদত্যাগ করেন দেবেন্দ্র।

সুপ্রিম কোর্টের আদেশের পরীক্ষার আগেই বিজেপি দলীয় মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র পদত্যাগ করায় এই রাজ্যে এখন সরকার গঠন করবে শিবসেনা-এনসিপি ও কংগ্রেস জোট। আগামী রোববার শিব সেনার প্রধান উদ্ধব ঠাকরে মহারাষ্ট্রের পরবর্তী মুখ্যমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণ করবেন। জোটের প্রধান হিসেবে নির্বাচিত হওয়ার পর সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে ঠাকরে বলেছেন, আমি এই রাজ্যের নেতৃত্ব দেব, তা কখনই স্বপ্ন দেখিনি। আমি কংগ্রেস প্রেসিডেন্ট সোনিয়া গান্ধী ও অন্যদের কৃতজ্ঞতা জানাতে চাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *