লেবাররা জিতলে সৌদিতে অস্ত্র রফতানি বন্ধ করবেন জেরেমি করবিন

ইউরোপ লিড নিউজ

(লন্ডন, যুক্তরাজ্য) যুক্তরাজ্যের প্রধান বিরোধী দল লেবার পার্টির নেতা জেরেমি করবিন বলেছেন, আসন্ন নির্বাচনে তার দল জয় লাভ করলে সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রি বন্ধ করে দেবেন তিনি। রোববার নির্বাচনী প্রচারণায় পররাষ্ট্র নীতি সম্পর্কে দেয়া এক তিনি এ মন্তব্য করেন। যুদ্ধবিধ্বস্ত ইয়েমেনে ব্যবহারের জন্য ব্রিটেনের কাছ থেকে অস্ত্র আমদানি করে সৌদি। আগামী ১২ ডিসেম্বর যুক্তরাজ্যের সাধারণ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে। এই নির্বাচনে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার দৌড়ে অন্যদের চেয়ে এগিয়ে রয়েছেন লেবার দলীয় এই নেতা। আলজাজিরা এ খবর দিয়েছে।

মধ্যপ্রাচ্যের আরব দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে বেশি অস্ত্র কিনে থাকে রাজতান্ত্রিক দেশ সৌদি আরব। বিলিয়র বিলিয়ন ডলারের এসব অস্ত্রের বেশিরভাগই আবার কেনা হয় যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যসহ পশ্চিমা দেশগুলো থেকে। জেরেমি করবিন বলেন, ইয়েমেনে ব্যবহারের জন্য সৌদি আরব যে অস্ত্র কিনে, তা বিক্রি বন্ধ করবে লেবার পার্টি। একই সঙ্গে সেখানে যুদ্ধের অবসানের জন্য কাজ করবে যুক্তরাজ্য। তবে কনজারভেটিভ দলীয় সরকার যুদ্ধ বন্ধের জন্য যেভাবে কাজ করেছে লেবার দলীয় সরকার সেভাবে কাজ করবে না।

লেবার পার্টির নতুন আন্তর্জাতিকীকরণের অর্থ হচ্ছে আমরা একটি শান্তি এবং সংঘাত প্রতিরোধ তহবিল গঠন করবো। আমাদের কূটনৈতিক সক্ষমতা সম্প্রসারণের জন্য অতিরিক্ত ৪০০ মিলিয়ন পাউন্ড বিনিয়োগ করবো। তবে আমরা ইয়েমেন, ইসরাইল এবং ফিলিস্তিনি ভূখণ্ডের মতো সংঘাত বৃদ্ধিতে ইন্ধন জোগাব না।

গত জুনে সৌদি আরবের ক্ষমতাসীন কনজারভেটিভ দলীয় সরকার জানায়, সৌদি আরব অথবা ইয়েমেনে হুথি বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে লড়াইরত সৌদির মিত্রদের কাছে অস্ত্র রফতানির জন্য নতুন করে কোনো ধরনের লাইসেন্সের অনুমোদন দেয়া হবে না। ব্রিটেনের একটি আদালত সৌদি আরবের কাছে অস্ত্র বিক্রি বেআইনি বলে আদেশ জারির পর এই ঘোষণা দেয়া হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *