ভারতে ইসলাম গ্রহণ করছে দলিত সম্প্রদায়ের ৩ হাজার মানুষ

ভারত

তামিলনাড়ু, ভারত- বর্ণবৈষম্যের অভিযোগ এনে ভারতের তামিলনাড়ু রাজ্যে দলিত সম্প্রদায়ের প্রায় ৩ হাজার মানুষ ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ঘোষণা দিয়েছে। গত রবিবার (২১ ডিসেম্বর) রাজ্যের কোয়েম্বাটোর জেলার মেত্তুপালায়ম শহরে এক বৈঠক শেষে এ ঘোষণা দেয়া হয়। ‘তামিল পুলিগাল’ নামে দলিতদের এক সংগঠনের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ২০২০ সালের ৫ জানুয়ারি থেকে তারা আনুষ্ঠানিকভাবে মুসলিম হবে। এর আগে গ্রাম্য প্রভাবশালীর দেয়া প্রাচীর ধসে নিহত ১৭ দলিতের বিচার চেয়ে দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছে সংগঠনটি। বিচার না পেয়ে তারা এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

নিউ ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, গত ২ ডিসেম্বর তামিলনাড়ুর মেত্তুপালায়ম শহরে অতিবৃষ্টিতে একটি প্রাচীর ধসে যায়। ওই ঘটনায় দলিত সম্প্রদায়ের ১১ নারী ও তিন শিশুসহ ১৭ জন নিহত হয়।

অভিযোগ উঠেছে, দলিতরা যেন জমিতে প্রবেশ না করতে পারে সে জন্য ওই প্রাচীর নির্মাণ করেছিলেন স্থানীয় প্রভাবশালী এক ব্যক্তি। দায়িত্বে অবহেলার অভিযোগে তাকে গ্রেফতার করা হলেও পরে তিনি জামিনে মুক্তি পান। এর জের ধরে আন্দোলনে নামে ‘তামিল পুলিগাল কাতচি’ নামের ওই সংগঠন। এক পর্যায়ে সংগঠনের সভাপতি নাগাই তিরুভল্লুয়ানকে গ্রেফতার করে জেলে পাঠানো হয়। তিনি জামিন আবেদন করলেও তা নামমঞ্জুর করেন আদালত।

‘তামিল পুলিগাল কাতচি’র সাধারণ সম্পাদক এম ইলাভেনিল বলেন, ‘আমরা দশকের পর দশক ধরে বৈষম্যের শিকার হয়ে আসছি। তাই সিদ্ধান্ত নিয়েছি, অনেক হয়েছে আর নয়।’ তিনি প্রশ্ন তুলেছেন, ‘একটি ধর্ম যদি আমাদের জীবনের মূল্যই না দিতে পারে, তাহলে আমরা কেন নিজেদের শুধু শুধু বিসর্জন দিয়ে যাবো।’

প্রথমেই মুসলমান হবার ইচ্ছা পোষণ করেছেন সুরেশ কুমার। এ বিষয়ে তার বক্তব্য, ‘আমরা আশা করছি- দলিত দাগটা, একবার দূর হলেই সব ধরনের বৈষম্য কমে যাবে। তাই প্রথমে আমিই মুসলমান হবো। তারপর আমার পরিবার।’সম্প্রদায়টির পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ৫ জানুয়ারি প্রথম ২০০ জন ইসলাম গ্রহণ করবে। পরদিন আরও ২০০ জন করে এ প্রক্রিয়া চলবে। এভাবে মোট ৩ হাজার মানুষ ধর্মান্তরিত হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *