নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে মুখোশধারীদের হামলার প্রতিবাদে ভারতজুড়ে বিক্ষোভ

ভারত

নয়াদিল্লি, ভারত- একদল মুখোশধারী ছাত্রছাত্রীর হামলায় দিল্লির জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা আক্রান্ত হওয়ার পর রবিবার ভারতজুড়ে বিক্ষোভ ছড়িয়ে পড়েছে। এদিন সন্ধ্যায় ওই হামলার ঘটনার পরই মধ্যরাতেই মুম্বাইয়ের বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের হাজার হাজার শিক্ষার্থী রাস্তায় নেমে আসে। বিক্ষোভ শুরু হয়েছে কলকাতা, পুনেসহ বিভিন্ন শহরেও। বিক্ষোভকারীরা বলছেন, ভিন্নমত দমন করতে এই হামলা চালিয়েছে রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (আরএসএস) সমর্থিত ছাত্র সংগঠন অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদের (এবিভিপি) কর্মীরা।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান,  রবিবার সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে হঠাৎ করে নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় চত্বরে ঢুকে পড়ে অর্ধশত মুখোশধারী। হাতে বড় বড় লাঠি আর পাথর নিয়ে একের পর এক হোস্টেলে তাণ্ডব চালাতে থাকে তারা। মুহূর্তের মধ্যে পুরো ক্যাম্পাসে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। আতঙ্কিত শিক্ষার্থীরা ক্যাম্পাসের এক প্রান্ত থেকে অন্য প্রান্ত ছোটাছুটি করতে থাকে। সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত ফুটেজে দেখা গেছে, শিক্ষার্থীদের তাড়া করে বেড়াচ্ছে মুখোশধারী সন্ত্রাসীরা।

ওই ঘটনার পরই আলীগড় মুসলিম বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা মোমবাতি মিছিল বের করে নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রতি সংহতি জানায়। পুনের ফিল্ম ও টেলিভিশন ইন্সটিটিউট এবং কলকাতার যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও বিক্ষোভ করেছে। নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ে হামলার নিন্দা জানিয়েছে জামিয়া টিচার্স অ্যাসোসিয়েশনও (জেটিএ)। তাদের অভিযোগ শিক্ষার্থীদের ওপর হামলার ঘটনায় মুখোশধারীদের সহায়তা দিয়েছে প্রশাসন।

নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী ও ফ্যাকাল্টি সদস্যদের অভিযোগ, রবিবার সন্ধ্যায় হামলার সময় পুলিশ ও ক্যাম্পাসের বেসরকারি নিরাপত্তাকর্মীরা নীরব ছিল। ভাঙচুর চালিয়ে সন্ত্রাসীদের বেরিয়ে যেতেও তাদের সহায়তা করা হয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছে তারা। সম্প্রতি ভারতে পাস হওয়া সংশোধিত নাগরিকত্ব আইনবিরোধী বিক্ষোভে অগ্নিগর্ভ হয়ে ওঠে জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয়। গত মাসে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভের ওপর লাঠিচার্জ করে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *