সোলাইমানি ও মিলিশিয়া নেতা হত্যা: যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ ইরাকের

মধ্যপ্রাচ্য

বাগদাদ, ইরাক- ড্রোন হামলা চালিয়ে ইরানের শীর্ষ সামরিক কমান্ডার কাসেম সোলাইমানি ও বেশ কয়েকজন মিলিশিয়া নেতা হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ জানিয়েছে ইরাক। জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদ ও সাধারণ পরিষদের কাছে পাঠানো পৃথক পৃথক চিঠিতে এ অভিযোগ জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এক প্রতিবেদনে এ খবর জানিয়েছে ব্রিটিশ বার্তা সংস্থা রয়টার্স।

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নির্দেশে ২০১৯ সালের ৩ জানুয়ারি শুক্রবার ইরাকের রাজধানী বাগদাদ বিমানবন্দরের কাছে বিমান হামলা চালিয়ে জেনারেল সোলাইমানিকে হত্যা করা হয়। ওই হামলায় ইরাকের প্যারামিলিটারি ফোর্স হাশদ আশ-শাবির উপপ্রধান আবু মাহদি আল-মুহানদিস’সহ মোট ১০ জন নিহত হন।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, ‘ইরাকের মাটিতে অবস্থান করে দেশটির সামরিক ঘাঁটিতে হামলা এবং ইরাক ও মিত্রদের ঊর্ধ্বতন সামরিক কমান্ডারদের হত্যা করে সার্বভৌমত্বকে মারাত্মকভাবে লঙ্ঘন করেছে যুক্তরাষ্ট্র।’

বিবৃতিতে মার্কিন হামলায় ইরাকি সেনা কমান্ডারদের নিহত হওয়ার ঘটনার নিন্দা জানানোর আহ্বানও জানানো হয়েছে। এর আগে ইরাকের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় বাগদাদে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত ম্যাথিউ টুয়েল্লারকে তলব করে ইরানের কুদস বাহিনীর কমান্ডার মেজর জেনারেল কাসেম সোলাইমানি এবং ইরাকের আধাসামরিক বাহিনী হাশদ আশ-শাবির উপপ্রধান আবু মাহদি আল-মুহান্দিসকে হত্যার কড়া প্রতিবাদ জানিয়েছে। পরে ইরাকের পার্লামেন্টও দেশটি থেকে অবিলম্বে মার্কিন সেনা বহিষ্কারের বিল পাস করেছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *