অভিনেত্রী ধর্ষণ মামলায় হলিউড প্রযোজকের ২৩ বছরের জেল

আমেরিকা লিড নিউজ

ওয়াশিংটন, যুক্তরাষ্ট্র- অভিনেত্রীদের যৌন হয়রানি ও ধর্ষণ মামলায় হলিউড প্রযোজকের ২৩ বছরের জেল দেয়া হয়েছে। দীর্ঘ আইনি লড়াইয়ের পর দোষী প্রমাণিত হওয়ায় হলিউডের প্রভাবশালী প্রযোজক হার্ভে ওয়াইনস্টাইনকে এই কারাদণ্ড দিয়েছেন নিউইয়র্কের একটি আদালত। বুধবার নিউইয়র্কের ওই আদালত ৬৭ বছর বয়সী ওই প্রযোজকের বিরুদ্ধে রায় দেন। ফলে বড় সাফল্যের মুখ দেখল #মিটু আন্দোলন। খবর বিবিসির।

২০০৬ সালে মিমি হ্যালেইকে যৌন নির্যাতন এবং জেসিকা মানকে ২০১৩ সালে ধর্ষণের অভিযোগে হার্ভে ওয়াইনস্টাইনকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন মার্কিন আদালত। এদিন হুইলচেয়ারে হাতকড়া পড়েই আদালতে এসেছিলেন হার্ভে। ১১ মার্চ সাজা শোনানো হবে বলে আগেই জানিয়েছিলেন আদালত। হলিউডে আনুষ্ঠানিকভাবে শাস্তির মুখে পড়লেন #মিটু আন্দোলনের জন্মদাতা এবং ধর্ষক প্রযোজক হার্ভে ওয়াইনস্টাইন।

এর আগে বেশ কিছু অভিযোগের ভিত্তিতে গত ২৫ ফেব্রুয়ারি হার্ভেকে দোষী সাব্যস্ত করেছিলেন নিউইয়র্কের ওই আদালত। এর পরই তাকে আটক করে নিজেদের হেফাজতে নেয় কর্তৃপক্ষ। সেদিনই জানানো হয়েছিল, কমপক্ষে ৫-২৫ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে হলিউডের প্রভাবশালী এ প্রযোজকের। অবশেষে সেটি হলো ২৩ বছরের।

বিশ্বজুড়ে তৈরি হওয়া #মিটু ঝড় প্রথম উঠে হার্ভে ওয়েনস্টেইনকে ঘিরেই। প্রথমে এক অভিনেত্রী-মডেল সাহস করে মুখ খুলেছিলেন হলিউডের এই দাপুটে প্রযোজকের বিরুদ্ধে। তার প্রতিবাদ সাহস জুগিয়েছিল অন্য ভুক্তভোগীদের। এর পরই একে একে সরব হন বাকিরা। তিরিশেরও বেশি অভিযোগ ওঠে বাফটা জয়ী এ প্রযোজকের বিরুদ্ধে।

অভিযোগকারীদের মধ্যে আছেন- অ্যাশলে জুড, রোজ ম্যাকগোয়ানের মতো অভিনেত্রীরাও। যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করে আসছেন ‘শেক্সপিয়ার ইন লাভ’, ‘দ্য কিংস স্পিচ’, ‘পাল্প ফিকশন’-এর মতো বিখ্যাত সিনেমার ওই প্রযোজক। নিজের এই ক্ষমতা অপব্যবহার করেই বহু নারীর সঙ্গে ওয়েনস্টাইন অশালীন আচরণ করেছেন বলে অভিযোগ রয়েছে।

সিনেমায় সুযোগ পাইয়ে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়ে নবাগতদের হোটেলরুমে নিয়ে তাদের নানাভাবে হেনস্তা করতেন তিনি। গত ৬ জানুয়ারি হার্ভে ওয়াইনস্টাইনের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের বিচার শুরু হয় নিউইয়র্কের আদালতে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *