করোনা মহামারীতে সংকটে ইসরাইলি কারাগারে ফিলিস্তিনিদের জীবন

মধ্যপ্রাচ্য

তেলআবিব, ইসরাইল- বিশ্বব্যাপী মহামারি রূপ নেয়া করোনাভাইরাস ছড়িয়ে পড়েছে ইসরাইলেও। ফলে বড় সংকটে পড়েছে দেশটির কারাগারে বন্দি কয়েক হাজার ফিলিস্তিনির জীবন। ইসরাইলের কারাগারে ফিলিস্তিনের রাজনৈতিক বন্দীদের কয়েকজন এই ভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর তাদের মধ্যে চরম আতঙ্ক দেখা দিয়েছে। মিডল ইস্ট আই’ এ খবর প্রকাশ করেছে।

‘দ্য প্যালেস্টাইন প্রিজনারস অ্যাফেয়ারস কমিটি’র দেওয়া তথ্য মতে, ইসরায়েলের মূল ভূখণ্ডে অবস্থিত আশকেলোন কারাগারের এক চিকিৎসক করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এবং তার সংস্পর্শে যাওয়া এক ফিলিস্তিনি বন্দীও এই ভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছে। ওই ফিলিস্তিনি আরও ১৯ জন বন্দীর সঙ্গে থাকায় তাদের সকলকে কোয়ারেনটাইনে পাঠানো হয়েছে।

এছাড়াও রামেলাহ কারাগার ও জেরুজালেমে অবস্থিত মস্কোবিয়া আটক কেন্দ্রে থাকা বন্দীদের মধ্যেও এই ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া গেছে। ফলে এই দুই কারাগারে থাকা বন্দীদের মধ্যে করোনা আক্রান্তের সম্ভাবনা রয়েছে তাদেরকে কোয়ারেনটাইনে রাখা হয়েছে।

এসব বন্দীদের কোয়ারেনটাইনে রাখার জন্য মিসর সীমান্তে অবস্থিত একটি কারাগার ফাঁকা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে দ্য ইসরায়েলি প্রিজন সার্ভিস (আইপিএস)।

ইসরাইলের কারাগারে থাকা ফিলিস্তিনি বন্দীদের মধ্যে করোনাভাইরাসের প্রভাব মারাত্মক হবে বলে জানিয়েছে ফিলিস্তিনের স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়। কারণ ইসরায়েলের কারাগারে গাদাগাদি করে রাখা হচ্ছে ফিলিস্তিনি বন্দীদের। এছাড়াও কারাগারগুলোতে নেই কোনো চিকিৎসা সুবিধা।

ইসরাইলের কারাগার থেকে মুক্তি পাওয়া মোহাম্মদ আবেদ রেবো ‘মিডল ইস্ট আই’কে বলেন, ‘ইসরায়েলের কারাগারগুলো ভয়াবহ রকমের নোংরা, একটি মাত্র ঘরে গাদাগাদি করে থাকে ৬-১০ জন বন্দী। এছাড়াও ওখানে চিকিৎসার কোনো ব্যবস্থা নেই, নেই সাবান ও হ্যান্ড স্যানিটাইজার।’ কারাগারে থাকা বন্দীদের মধ্যে ভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়ার পর থেকেই বন্দীদের সঙ্গে তাদের আত্মীয়দের দেখা করতে দিচ্ছে না ইসরায়েলের প্রশাসন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *