করোনা সম্পর্কে তিনটা সুখবর

অন্যান্য

করোনা ভাইরাস নিয়ে বিশ্বজুড়ে আতঙ্ক। কিন্তু এর মধ্যেও সুখবর শোনাচ্ছেন স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞরা। করোনা সম্পর্কে তিনটা সুখবর এই মুহূর্তে মানুষের আশার আলো দেখাচ্ছে।

এক. প্লাজমা চিকিৎসা

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের কলাম্বিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের এক অধ্যাপক জানুয়ারিতেই চায়না সফর করে কোভিড-১৯ এ আক্রান্ত এবং সেরে উঠা এক ব্যক্তির রক্ত থেকে প্লাজমা সংগ্রহ করে তিনজন করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে প্রবেশ করান। পরবর্তীতে এই তিনজনই অন্যের এন্টিবডি প্লাজমা নিয়ে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। করোনা থেকে সুস্থ হয়ে উঠা একজন ব্যক্তি সর্বমোট তিনজনকে এই প্লাজমা ডোনেট করতে পারবেন। নিউইয়র্ক টাইমসের মতে বিষয়টি CDC এবং WHO এর পরীক্ষাধীন আছে। এই ধরণের চিকিৎসা অবশ্য নতুন নয়।

দুই. ভ্যাকসিন

যে সাহসী আমেরিকান মহিলাটি ভ্যাকসিন রিসার্চের জন্য প্রথম মডেল হিসেবে রাজী হয়েছিলেন তার শরীরে কোন উপসর্গ দেখা দেয়নি। এর মানে হিউম্যান মডেল কাজ করা শুরু করেছে প্রাথমিকভাবে। এই ভ্যাকসিন রিসার্চে যেহেতু ‘এনিম্যাল মডেল’ কাজ করছে না সেহেতু এই ঘটনাটাও একটা সুখবর মানবজাতির জন্য।

তিন. গরম

দুটি খুবই ভালো গবেষণায় দেখা যাচ্ছে যে গরম অঞ্চলে করোনার থাবা কম। ফলে উহানের বাহিরে এমনকি চায়নাতেও এই ভাইরাসটি ছড়াতে পারে নাই। ইউরোপ এবং আমেরিকার ঠান্ডা আবহাওয়া এর সংক্রমণ বিস্তারে সাহায্য করেছে। ভাইরাস কিন্তু জীবানু নয়। এটা ব্যাকটেরিয়া নয়। এর কোন জীবন নেই। তাই এর কোন মৃত্যুও নেই।

যেহেতু এটি এক প্রকার আমিষ এবং এর বাহিরে একপ্রকার চর্বির আবরণ থাকে, ফলে এই চর্বি গরমে গলে গেলে তার RNA জিনটি নষ্ট হয়ে যায়। এগুলো আপনারা সবাই জানেন।প্রকৃতির নিয়মেই বাংলাদেশের তাপমাত্রা গত একসপ্তাহ ধরে বেড়ে যাচ্ছে ৩৪-৩৫-৩৬ থেকে ৩৭ ডিগ্রিতে। ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *