মায়ের মৃত্যুর ৪ দিন পর চলে গেলেন অভিনেতা ইরফান খানও

ভারত

মুম্বাই, ভারত- মায়ের মৃত্যুর ৪ দিন পর না ফেরার দেশে পাড়ি জমালেন বলিউডের জনপ্রিয় অভিনেতা ইরফান খান। ভারতের মুম্বাইয়ের কোকিলাবেন ধীরুভাই আম্বানি হাসপাতালের আইসিইউতে থাকা অবস্থায় বুধবার মারা যান কালজয়ী এই অভিনেতা। এ সময় ইরফানের পাশে ছিলেন স্ত্রী সুতপা সিকদার এবং দুই সন্তান বাবিল ও আয়ান।

অভিনেতার মুখপাত্রের বরাত দিয়ে মৃত্যুর খবরটি নিশ্চিত করেছে ইন্ডিয়া টুডে। ফিল্মফেয়ারের ফেসবুক পেজেও তার মৃত্যুর খবর দিয়ে শোক প্রকাশ করা হয়েছে। ২০১৮ সালে নিউরোএন্ডোক্রাইন ক্যানসারে আক্রান্ত হন ইরফান। লন্ডনে গিয়ে চিকিৎসাও নেন। এরপর খানিকটা সুস্থ হয়ে ‘আংরেজি মিডিয়াম’ ছবিতে অভিনয় করেন। তবে শারীরিক অসুস্থতার কারণে প্রচারে ছিলেন না।

আরও পড়তে পারেন- বলিউডে মোদিবিরোধী যত তারকা

গত শনিবার জয়পুরে মারা যান ইরফানের মা সাঈদা বেগম (৯৫)। তখন ভারতজুড়ে চলমান লকডাউনের কারণে মায়ের জানাজায় যেতে পারেননি মুসলিম এই অভিনেতা। মায়ের মৃত্যুর পর হঠাৎ করে স্বাস্থ্যের অবনতি হওয়ায় বলিউড অভিনেতা ইরফান খানকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছিল। মঙ্গলবারই অভিনেতার মৃত্যুর গুজব ওঠে। তখন পরিবারের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ইরফান মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছেন।

আরও পড়তে পারেন- চোখ মেরেই বলিউডকে কুপোকাত করলেন প্রিয়া প্রকাশ

মোস্তফা সরয়ার ফারুকীর ‘ডুব’ সিনেমায় অভিনয় করেছিলেন ইরফান খান। এই সিনেমা তাকে বাংলাদেশের মানুষের কাছে বিশেষ পরিচিতি এনে দেয়। মার্চ মাসে মুক্তি পায় ইরফানের ‘আংরেজি মিডিয়াম’ সিনেমা। তখনও শরীর অসুস্থ ছিল বলে তাকে প্রচারে দেখা যায়নি। যদিও করোনার কবলে কয়েক দিন পরই বন্ধ হয়ে যায় এই ছবির প্রদর্শন।

(ভাল লাগলে নিউজটা ফেসবুক ও টুইটারে শেয়ার করুন)

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *