এবার অ্যানিমেশন বানিয়ে আমেরিকাকে সমালোচনার জবাব দিল চীন

আমেরিকা চীন লিড নিউজ

বেইজিং, চীন- করোনাভাইরাসের উৎস এবং তার সংক্রমণ ছড়ানো নিয়ে এত দিন মৌখিক লড়াই চলছিল দুই দেশের মধ্যে। এবার অ্যানিমেশন ব্যবহার করে করোনাভাইরাস প্রসঙ্গে আমেরিকাকে তীব্র কটাক্ষ করল চীন। অ্যানিমেশনটি অনলাইনে শেয়ার করেছে চীনের সরকারি সংবাদপত্র সিনহুয়া। অ্যানিমেশনটির নাম দেয়া হয়েছে ‘ওয়ানস আপঅন আ ভাইরাস।’

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়া অ্যানিমেশনে দেখা যাচ্ছে, এক প্রান্তে মুখোশ পরে দাঁড়িয়ে আছে কয়েক জন যোদ্ধা। অন্য প্রান্তে স্ট্যাচু অব লিবার্টি। শরীরে স্যালাইন চলছে। কথোপকথনে যোদ্ধারা বলছে, ‘আমরা নতুন ভাইরাস আবিষ্কার করেছি। এটা ভয়ানক।’ স্ট্যাচু অব লিবার্টি পাল্টা উত্তর দিয়ে বলছে, ‘তাতে কী হয়েছে? এটা তো নেহাতই এক ধরনের ফ্লু।’ যোদ্ধারা সতর্ক করা সত্ত্বেও স্ট্যাচু অব লিবার্টি যেন নির্বিকার। এর পরই যোদ্ধারা বলে, ‘মাস্ক পরো।’

আরও পড়তে পারেন- করোনার উৎস খুঁজতে আন্তর্জাতিক তদন্তের প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান চীনের

স্ট্যাচু অব লিবার্টিকে বলতে শোনা যায়, ‘পরব না।’ নানা রকম প্রস্তুতি নেয়ার কথা বলে যোদ্ধারা। তাতেও স্ট্যাচু অব লিবার্টি পাত্তা দেয় না। যোদ্ধাদের ‘টিপিকাল থার্ড ওয়ার্ল্ড’ বলেও কটাক্ষ করে স্ট্যাচু অবল লিবার্টি। এর কিছু ক্ষণ পরেই অ্যানিমেশনে দেখা যাচ্ছে, ধীরে ধীরে জ্বরে লাল হয়ে যাচ্ছে স্ট্যাচু অব লিবার্টি। তাকে স্যালাইন দিতে হচ্ছে।

স্ট্যাচু অব লিবার্টির এই অবস্থা দেখে যোদ্ধারা বলছে, ‘শুধু কি নিজেদের কথাই শুনবে?’ প্রত্যুত্তরে স্ট্যাচু বলল, ‘আমরা সব সময়ই সঠিক’। এবার যোদ্ধারা বলল, ‘এই কারণেই তো আমেরিকানদের আমরা পছন্দ করি।’ এখানেই শেষ কথোপকথন।

আরও পড়তে পারেন- বানরের ওপর করোনার ভ্যাকসিনের ‌’সফল প্রয়োগে’র দাবি চীনা গবেষকদের

এই অ্যানিমেশনের মধ্য দিয়ে পরোক্ষভাবে ট্রাম্পকেই কটাক্ষ করা হয়েছে বলে মনে করছেন কূটনৈতিক বিশেষজ্ঞরা। সাধারণ ফ্লু ভেবে আমেরিকা যে নির্বিকার ছিল, সেই ঘটনাকেও তুলে ধরা হয়েছে এর মধ্য দিয়ে। গোটা বিশ্বের মধ্যে এখন আমেরিকাই করোনা সংক্রমণ এবং তাতে মৃত্যুর সংখ্যার নিরিখে শীর্ষে।

বিশ্বে করোনাভাইরাসের সংক্রমণের জন্য বার বারই চীনকে দায়ী করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। শুধু তাই নয়, তিনি এমনও অভিযোগ তুলেছেন, উহানের ল্যাবে এই ভাইরাস তৈরি করেছে চীন। যদিও এর সপক্ষে কোনো প্রমাণ দেখাতে পারেনি আমেরিকা।

মার্কিন গোয়েন্দারাও জানিয়েছেন, এই ভাইরাস মানুষের তৈরি নয় বা জিনগতভাবে কোনো পরিবার্তন করা হয়নি। একই কথা জানিয়েছে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাও। কিন্তু তার পরেও চিনকে আক্রমণ করতে এবং চীনের বিরুদ্ধে অভিযোগের আঙুল তুলতে ছাড়েননি ট্রাম্প। কড়া হুঁশিয়ারিও দিয়েছেন চীনকে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *