ট্রাম্পের বিরুদ্ধে জন বোল্টনের অভিযোগ

নির্বাচনে শি জিনপিংয়ের সাহায্য চেয়েছেন ট্রাম্প

আমেরিকা চীন লিড নিউজ

ওয়াশিংটন, যুক্তরাষ্ট্র- আসন্ন মার্কিন নির্বাচনে ফের নির্বাচিত হতে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সাহায্য চেয়েছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এই বিস্ফোরক অভিযোগ তুলেছেন সাবেক নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বল্টন। দ্য রুম হয়ার ইট হ্যাপেন শিরোনামে বল্টনের লেখা নতুন বইটিতে ট্রাম্পের বিরুদ্ধে এমন অভিযোগ আনা হয়েছে।

বইটিতে বল্টন দাবি করেন, গত বছরের জুনে ওসাকা শহরে জি২০ সম্মেলনের সময় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের মধ্যকার এক বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। ওই বৈঠকে শি যুক্তরাষ্ট্রে থাকা চীনের সমালোচকদের নিয়ে ট্রাম্পের কাছে নালিশ করেন।

ট্রাম্পও বৈঠকের এক পর্যায়ে নির্বাচনে জয়ী হওয়ার জন্য শি জিনপিং’র কাছে সাহায্য চান। এছাড়া চীনের উইঘুর মুসলমানের ওপর নির্যাতনের অভিযোগ নিয়েও ওই বৈঠকে আলোচনা করেন ট্রাম্প এবং শি। জানা গেছে, বৈঠকে শি নিজেদেরকে নির্দোষ দাবি করে জিনজিয়াং প্রদেশে উইঘুর মুসলিমদের জন্য ক্যাম্প বানানোর বিষয়টি তুলে ধরেন এবং তাতে সায় দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউজের দায়িত্ব পালনের সময়ের ঘটনা নিয়ে এ বছর একটি বই প্রকাশের ঘোষণা দেন মার্কিন আগ্রাসী পররাষ্ট্র নীতির সমর্থক বল্টন। ‘দ্য রুম হয়ার ইট হ্যাপেন’ শিরোনামে ৫৭৭ পৃষ্ঠার বইটি আগামী ২৩ জুন প্রকাশের কথা রয়েছে। তবে তা আটকানোর চেষ্টায় রয়েছে ট্রাম্প প্রশাসন।

প্রকাশনাটি আটকাতে গত বুধবার রাতে এক বিচারকের কাছে জরুরি আদেশ চেয়েছে মার্কিন বিচার বিভাগ। এছাড়া জানুয়ারিতে হোয়াইট হাউজের পক্ষ থেকে যে বলা হয় বইটিতে অতি গোপনীয় বিষয় রয়েছে। সেগুলো সরিয়ে ফেলতে বলা হলেও তাতে অস্বীকৃতি জানান বল্টন। এই সপ্তাহে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেছেন, বইটি নিয়ে অপরাধ জনিত সমস্যায় পড়তে পারেন বল্টন।

হোয়াইট হাউসে দায়িত্ব পালনের সময়ের ঘটনা নিয়ে নতুন একটি বই প্রকাশ করতে যাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের সাবেক জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন। এ নিয়ে ইতোমধ্যে ট্রাম্প প্রশাসনের সঙ্গে টানাপোড়েন শুরু হয়েছে তার।

এরই মধ্যে ওই বইয়ের সংক্ষিপ্ত অংশ প্রকাশ করে দিয়েছে মার্কিন মিডিয়া। বইতে জন বোল্টন জানিয়েছেন, দ্বিতীয় দফায় নিজের প্রেসিডেন্ট নির্বাচিত হওয়া নিশ্চিত করতে চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের সাহায্য পাওয়ার চেষ্টা করেছেন ডোনাল্ড ট্রাম্প। ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র প্রতিবেদন থেকে এসব তথ্য জানা গেছে।

২০১৫ সালে ইরানের সঙ্গে ছয় বিশ্বশক্তির স্বাক্ষরিত পারমাণবিক চুক্তিকে যুক্তরাষ্ট্রের সবচেয়ে খারাপ জনতুষ্টির উদাহরণ বলে মন্তব্য করে রাজনৈতিক ক্যারিয়ার শুরু করেছিলেন জন বোল্টন। বুশ প্রশাসনের অধীনে জাতিসংঘে রাষ্ট্রদূতের দায়িত্ব পালন করে আসা এই সাবেক কূটনীতিককে ২০১৮ সালের এপ্রিলে জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা নিয়োগ করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। আর প্রেসিডেন্টের সঙ্গে মতপার্থক্যের জেরে পরের বছরের সেপ্টেম্বরেই তাকে বিদায় করে দেয়া হয়।

আরও পড়ুন:

[পুলিশ সংস্কারে নির্বাহী আদেশ স্বাক্ষর ট্রাম্পের]

[আন্তর্জাতিক আদালতের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা দিল যুক্তরাষ্ট্র]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *