লাদাখ সীমান্তে যুদ্ধের প্রস্তুতি ভারতীয় বিমানবাহিনীর

ভারত লিড নিউজ

লাদাখ, ভারত- লাদাখ সীমান্তে যুদ্ধের প্রস্তুতি নিচ্ছে ভারতীয় বিমানবাহিনী। চলমান উত্তেজনার মধ্যে ভারতীয় সেনাবাহিনীতেও হাই অ্যালার্ট জারি করেছে সরকার। এরই মধ্যে গ্রাউন্ড জিরোতে দ্বিতীয় ফ্ল্যাগ মিটিংয়ে বসেছে দুই দেশের সেনা কর্মকর্তারা।

ভারতীয় বিমানবাহিনী, নৌ সেনা এবং স্থলবাহিনীকে সবরকম পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য প্রস্তুত থাকতে বলেছে নরেন্দ্র মোদির সরকার।  ভারত এবং চীনের প্রতিটি সীমান্তেই অতিরিক্ত বাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে। নিয়ন্ত্রণরেখার খুব কাছে আরও বেশি সেনা নিয়োগ করা হয়েছে। সকলকেই অতি সতর্ক থাকতে বলা হয়েছে। অন্য দিকে ভারতের নৌসেনা প্রশান্ত মহাসাগর অঞ্চলে টহল বাড়িয়েছে। তারাও যে কোনও পরিস্থিতি মোকাবিলার জন্য প্রস্তুতি নিয়ে রেখেছে।

সোমবার রাতে লাদাখের ঘটনার পরে ভারত বা চীন কোনও দেশই সরাসরি যুদ্ধের কথা বলেনি। কিন্তু দুই দেশের বিবৃতিতেই উত্তেজনা পারদ যথেষ্ট চড়া। তারই মধ্যে বুধবার লাদাখে ভারত এবং চীন সেনার ফ্ল্যাগ বৈঠক ভেস্তে গিয়েছে। বৃহস্পতিবার ফের মেজর জেনারেল স্তরের বৈঠক শুরু হয়েছে। সেখানেই সোমবার রাতে প্রায় আট ঘণ্টা ধরে ভারত এবং চীনের সৈন্য সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে। যার জেরে ভারতের অন্তত ২০ জন সেনা নিহত হয়েছেন। চীনেরও বেশ কয়েক জন সেনা নিহত হয়েছেন বলে সূত্রের খবর। যদিও সরকারি ভাবে চীন এখনও কিছু জানায়নি।

সামরিক বিশেষজ্ঞদের অনেকেই বলছেন, এতজন সেনার প্রাণহানি হওয়ার পরে এই মুহূর্তে সীমান্তে উত্তেজনা কমা কঠিন।দুই পক্ষের সেনাই প্রতিশোধ নেওয়ার জন্য তৈরি হয়ে আছে। তবে আলোচনার রাস্তা খোলা থাকবে।

লাদাখ সীমান্তে গালওয়ান উপত্যকায় সোমবার রাতে ঘটে যাওয়া রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের পর টানা দ্বিতীয় দিনের মতো বৈঠকে বসেছেন দুই দেশের সেনাবাহিনীর কর্মকর্তারা। বুধবার বৈঠক ফলপ্রসূ না হওয়ায় বৃহস্পতিবার ভোরে দুই পক্ষ আবারো আলোচনার টেবিলে বসেন। ভারতীয় সেনাবাহিনীর একজন মেজর জেনারেল পদমর্যাদার অফিসার আলোচনায় বসেন চীনা সেনাবাহিনীর পদস্থ কর্মকর্তার সঙ্গে।

আরও পড়ুন

[চীনবিরোধী বিক্ষোভ শুরু ভারতে]

[জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য নির্বাচিত ভারত]

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *