বর্ণবাদী বিজ্ঞাপন বন্ধ করল কোকাকোলা

বর্ণবাদী বিজ্ঞাপন বন্ধ করল কোকাকোলা

আমেরিকা

বর্ণবাদী বিজ্ঞাপন বন্ধ করল পানীয় কোম্পানি কোকাকোলা। বর্ণবিদ্বেষের বিরুদ্ধে আন্দোলনের যে ঢেউ উঠেছে তাতে যোগ দিয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কোম্পানিটি। কোন বিজ্ঞাপনের বিষয়বস্তু বর্ণবাদকে ইন্ধন দিচ্ছে কিনা সে বিষয়ে খতিয়ে দেখতে ৩০ দিনের জন্য সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন বন্ধ রেখেছে তারা।

যুক্তরাষ্ট্রে শ্বেতাঙ্গ পুলিশের হাতে কৃষ্ণাঙ্গ যুবক জর্জ ফ্লয়েড হত্যার প্রতিবাদে বিশ্বজুড়ে আন্দোলনের ঝড় উঠেছে। এর মধ্যে বর্ণবাদবিরোধী বিক্ষোভকারীদের সমালোচানার মুখে পড়েছে বেশ কিছু বহুজাতিক কোম্পানি। তবে কোকাকোলার বিরুদ্ধে এখনও নির্দিষ্ট কোনো অভিযোগ ওঠেনি।  তবে যেভাবে আন্দোলন গতি পাচ্ছে তাতে কোকাকোলা স্বতঃপ্রণোদিত হয়ে সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বিজ্ঞাপনে বর্ণবিদ্বেষের কোনও জায়গা নেই। এই সময়ের মধ্যে তারা বিশ্লেষণ করবে, তাদের কোনও বিজ্ঞাপনী বিষয়বস্তু বর্ণবাদে ইন্ধন দিচ্ছে কিনা।

বর্ণবাদী বিজ্ঞাপন বিষয়ে কোকাকোলার সিইও জেমস কুইয়েন্সি বলেছেন, ‘এ ব্যাপারে কোকাকোলা স্বচ্ছ থাকতে চায়। যে কোনও ধরনের বিদ্বেষের বিরুদ্ধে কোকাকোলা। আমাদের বিজ্ঞাপন পর্যালোচনা করার জন্যই আমরা ৩০ দিন সোশ্যাল মিডিয়ায় তা বন্ধ রাখব।’ সারা বিশ্বজুড়ে যে সংস্থাগুলির বিজ্ঞাপনের দাপট দেখা যায় তার মধ্যে অন্যতম কোকাকোলা। সেদিক থেকে এই সিদ্ধান্ত তাৎপর্যপূর্ণ বলেই মনে করছেন পর্যবেক্ষকদের অনেকে।

এরই মধ্যে ইউনিলিভার সিদ্ধান্ত নিয়েছে লিপটন টি এবং বেন অ্যান্ড জেরি আইসক্রিমেরে বিজ্ঞাপন ফেসবুক থেকে প্র্যাহার করে নেবে। শুক্রবার ফেসবুক কর্তৃপক্ষও সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বড় অংশের বিজ্ঞাপন বন্ধ করা হবে। অর্থাৎ বড় অংশের বিজ্ঞাপনের কোথাও না কোথাও কোনও না কোনও ভাবে যে বর্ণবাদের ছোঁয়া রয়েছে তা কার্যত মেনে নেওয়া হয়েছে।এরই মধ্যে ফেয়ার অ্যান্ড লাভলি তার নামের থেকে ফেয়ার শব্দটি বাদ দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

জর্জ ফ্লয়েডের মৃত্যুর পর মার্কিন মুলুকে শুরু হওয়া নাগরিক আন্দোলন দাবানলের মতো ছড়িয়ে পড়ে সারা বিশ্বজুড়ে। রুপ বদলে সেই আন্দোলন স্থান নেয় সোস্যাল মিডিয়ায়। এবার সোশ্যাল মিডিয়ায় ডিজিটাল প্রতিবাদে একের পর এক সংস্থা হয় বিজ্ঞাপন তুলে নিচ্ছে অথবা পর্যালোচনা করার সিদ্ধান্ত নিচ্ছে, বদল হচ্ছে ব্র্যান্ডের নামও।

আরও পড়ুন:

পুলিশ সংস্কারে নির্বাহী আদেশ স্বাক্ষর ট্রাম্পের

ট্রাম্প চাচা বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ংকর মানুষ, বললেন ভাতিজি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *