করোনা ফেয়ারওয়েল পার্টি;ভীড় হাজারো মানুষের

ইউরোপ লিড নিউজ

করোনা ফেয়ারওয়েল পার্টি করে নাচলেন গাইলেন প্রাগ শহরের বাসিন্দারা। প্রাগ চেক প্রজাতন্ত্রের ও ইউরোপীয় ইউনিয়নের ১৪তম বৃহত্তম শহর।শহরের বুক চিরে বয়ে গেছে ভলটাভা নদী। ভলটাভার ওপর দেড়শ’ বছরের পুরনো সেতু।নাম চার্ল্স ব্রিজ।সেই ব্রিজের ওপরই করোনাকে বিদায় সম্ভাষন জানিয়ে নেচে গেয়ে পার্টি করেছে প্রাগ শহরের বাসিন্দারা। 

চেক প্রজাতন্ত্রের বৃহত্তম শহর প্রাগে লকডাউনে ছিল দীর্ঘ্দন। সরকার প্রাগসহ দেশের কোনও জায়গাকেই করোনা মুক্ত বলে ঘোষণা না করলেও হুল্লোড়বাজ নাগরিকরা পার্টিতে মেতেছিলেন।চেক প্রজাতন্ত্র সরকার প্রাগসহ দেশের কোনও জায়গাকেই করোনা মুক্ত বলে ঘোষণা না করলেও হুল্লোড়বাজ নাগরিকরা মঙ্গলবার ভলটাভা নদীর চার্ল্স ব্রিজের ওপর এমন পার্টিতে মেতেছিলেন। হাজার-হাজার মানুষ রাস্তায় নেমে গেয়েছেন, নেচেছেন এবং মদও খেয়েছেন।

প্রাগের মানুষজন বাইরে বেরিয়ে এতটাই আনন্দিত যে, তারা প্রাগের বিখ্যাত ব্রিজের ওপর করোনাভাইরাসের বিদায়ী পার্টি’র আয়োজন করেন। সেই পার্টিতে যোগ দিয়েছিলেন  সেই শহরের প্রায় হাজার খানেক মানুষ। রীতিমতো একে-অন্যের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ হয়েই পার্টি করেন তারা। সামাজিক দূরত্ব কী, তা যেন বেমালুম ভুলে গিয়েছিলেন প্রাগের বাসিন্দারা।

পার্টিতে যোগ দেয়া এক ক্যাফের মালিক কোবজা বলেন, ‘আমরা করোনাভাইরাসের মৃত্যু সেলিব্রেট করতে এসেছি। আমরা বোঝাতে এসেছি, মানুষকে এভাবে আলাদা করা যায় না। আমরা বোঝাতে এসেছি, ভাইরাসের কারণে আমরা একজন আরেকজনের থেকে এক টুকরো স্যান্ডহুইচ নেব না, এটা হতে পারে না।’

করোনাভাইরাসে শহরটিতে এখনও কারও মৃত্যু হয়নি। যদিও পুরো এই শহরে করোনায় আক্রান্তের সংখ্যা ২,৩৬৩ জন। এতে সুস্থ হয়ে উঠেছেন ১৫০৮ জন। তাই প্রাগের কাছে ‘ইটস পার্টি টাইমস’।

আরও পড়ুন যুক্তরাষ্ট্র ‘রেমডিসিভির’ সব ওষুধ কিনে নিল

হঠাৎ অবসরের কারন জানালেন ডি ভিলিয়ার্স

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *