যুক্তরাষ্ট্রের জন্য বড় হুমকি চীন: এফবিআই প্রধান

আমেরিকা চীন লিড নিউজ

যুক্তরাষ্ট্রের জন্য বড় হুমকি চীন। এমনটাই মনে করছে মার্কিন গোয়েন্দা সংস্থা এফবিআই। সংস্থাটির প্রধান ক্রিস্টোফার রে বলেছেন, চীনের গুপ্তচরবৃত্তিকে যুক্তরাষ্ট্রের জন্য ‘সবচেয়ে বড় হুমকি’। তার মতে, বর্তমানে চীন সরকার যে ধরনের গুপ্তচর ও চৌর্যবৃত্তি শুরু করেছে তা যুক্তরাষ্ট্রের অদূর ভবিষ্যতের জন্য দীর্ঘস্থায়ী বড় হুমকির কারণ হয়ে দাঁড়াবে এফবিআই।

এফবিআই প্রধান মঙ্গলবার ওয়াশিংটনের হাডসন ইনস্টিটিউটে এমন আশঙ্কার কথা জানান । এফবিআই প্রধান আরও বলেন, ‘যেকোনো উপায়ে বিশ্বের একমাত্র ক্ষমতাধর রাষ্ট্র হওয়ার জন্য সর্বশক্তি দিয়ে উঠেপড়ে লেগেছে চীন।’

প্রায় ঘণ্টাব্যাপী বক্তব্য রাখেন ক্রিস্টোফার রে। ক্রিস্টোফার রে তার বক্তব্য চলাকালে চীনের অর্থনৈতিক গুপ্তচরবৃত্তি, তথ্য ও অর্থ-সংক্রান্ত চৌর্যবৃত্তি, অবৈধ রাজনৈতিক কার্যক্রম এবং যুক্তরাষ্ট্রের বিষয়ে হস্তক্ষেপ করার জন্য উপঢৌকন ও ব্ল্যাকমেইলের বিচিত্র চিত্র তুলে ধরেন।

এফবিআই ডিরেক্টর এ সময় জানান চীনের বিষয়েও পাল্টা গোয়েন্দগিরি শুরু হয়েছে।  তিনি বলেন, ‘আমরা এখন এমন একটা জায়গায় পৌঁছে গিয়েছি যে, প্রতি ১০ ঘণ্টায় নতুন করে চীনের বিষয়ে পাল্টা গোয়েন্দাগিরি শুরু করছে এফবিআই।’ মার্কিন এ গোয়েন্দা প্রধান আরও বলেন, ‘বর্তমানে দেশে প্রায় পাঁচ হাজারের কাছাকাছি বিষয়ে পাল্টা গোয়েন্দা অনুসন্ধান কার্যক্রম পরিচালনা করছে এফবিআই। এর মধ্যে প্রায় অর্ধেকই চীন-সম্পর্কিত।’

বর্তমানে নানা কারণে সম্পর্ক ভালো যাচ্ছে না যুক্তরাষ্ট্র-চীনের। কয়েক বছর ধরে দেশ দুটির মধ্যে বাণিজ্যযুদ্ধ চলছে। এছাড়া মহামারি করোনাভাইরাস ইস্যুতে বেইজিংয়ের ওপর নাখোশ ওয়াশিংটন। এমনকি সম্প্রতি চীনে আধা-স্বায়ত্তশাসিত হংকং বিষয়ে যে আইন পাস হয়েছে তাতেও চটেছে যুক্তরাষ্ট্র। এবার চীনের গোয়েন্দাগিরি নিয়ে আশঙ্কার কথা জানালেন এফবিআই প্রধান।  

চীনের ‘ফক্স হান্ট’ কর্মসূচির কথা উল্লেখ করে রে অভিযোগ করেন, চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংই মূলত ওই কর্মসূচির নেতৃত্ব দিচ্ছেন। এর মাধ্যমে বিদেশে বসবাসরত চীনা নাগরিকদের সরকার হুমকি দিচ্ছে।

রে বলেন, ‘আমরা (তাদের) রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী, ভিন্নমতের দল ও সমালোচকদের কথাই বলছি। যারা চীনের বিস্তৃত মানবাধিকার লংঘনের বিষয়গুলো উন্মোচন করতে চান, চীন সরকার তাদের জোর করে দেশে ফেরাতে চায়। চীন যে কৌশলে এটা হাসিল করছে তা দুঃখজনক।’

তিনি ব্যাখ্যা করেন, ‘চীন যখন ‘ফক্স হান্ট’ কর্মসূচির মাধ্যমে তাদের তালিকায় থাকা নির্দিষ্ট কোনো ব্যক্তির খোঁজ পায় না, তখন তারা যুক্তরাষ্ট্রে ওই ব্যক্তির পরিবারের সদস্যদের কাছে গুপ্তচর পাঠায়। এর মাধ্যমে তারা কী বার্তা দেয়? ওই টার্গেট করা মানুষটির সামনে তখন দুটি পথ খোলা থাকে, হয় স্বেচ্ছায় চীনে ফিরে যাও অথবা আত্মহত্যা করো।’

যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত কোনো চীনা নাগরিককে দেশে ফেরানোর জন্য চীনা কর্মকর্তারা এমন কিছু করলে এফবিআইয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করার পরামর্শও দেন ক্রিস্টোফার রে।

আরও পড়ুন-

গালওয়ানের পর হট স্প্রিং এলাকা থেকেও সরল চীনা বাহিনী

করোনা প্রকোপের মাঝেই খুলছে হার্ভার্ড এবং পিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *