জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা

জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা গ্রেফতার

বাংলাদেশ লিড নিউজ

জেকেজি হেলথকেয়ারের চেয়ারম্যান ডা. সাবরিনা আরিফকে গ্রেফতার করা হয়েছে। করোনাভাইরাস পরীক্ষায় জালিয়াতি করার অভিযোগে রোববার তাকে গ্রেফতার করে পুলিশ। সেই সঙ্গে তার পরিচালিত হাসপাতাল সিলগালা করে দেয়া হয়েছে। তেজগাঁও সার্কেলের অতিরিক্ত কমিশনার মাহমুদ খান এই তথ্য নিশ্চিত করেন। খবর বিবিসির।

কমিশনার মাহমুদ খান বলেন, ‘জেকেজি’র প্রধান নির্বাহী আরিফুল হক চৌধুরীকে যে মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে, তার স্ত্রী সাবরিনা আরিফকে ঐ একই মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে।’

মাহমুদ খান আরো জানান, জিজ্ঞাসাবাদের জন্য সাবরিনা আরিফকে পুলিশ তলব করে, এবং জিজ্ঞাসাবাদ শেষে মামলার সাথে সংশ্লিষ্টতা পাওয়ায় তাকে গ্রেফতার দেখানো হয়। আগামীকালই (সোমবার) তাকে আদালতে নেয়া হবে বলে নিশ্চিত করেন পুলিশ কর্মকর্তা মাহমুদ খান।

আরও পড়ুন-

অবৈধপথে ইতালি পৌঁছাল ৩৬২ বাংলাদেশি

করোনাভাইরাস পরীক্ষা করার অনুমোদন থাকলেও পরীক্ষা না করে ভুয়া ফলাফল দেয়ার অভিযোগে ২৩শে জুন জেকেজি হেলথকেয়ারের প্রধান নির্বাহী আরিফুল হক চৌধুরীসহ প্রতিষ্ঠানটির কয়েকজন কর্মকর্তা-কর্মচারীকে গ্রেফতার করা হয়।

অভিযোগ সম্পর্কে সাবরিনা চৌধুরীর কোনো বক্তব্য পাওয়া না গেলেও জেকেজি’র জালিয়াতির সাথে সম্পৃক্ততার অভিযোগকে ‘অপপ্রচার’ বলে উল্লেখ করে কয়েকদিন আগে সংবাদপত্রে একটি বিজ্ঞপ্তি দেন তিনি।

করোনা টেস্ট না করেই রিপোর্ট দেয়ার কেলেংকারীর জন্য জেকেজি (জোবেদা খাতুন হেলথ কেয়ার) গ্রুপ এখন দেশব্যাপী আলোচনার বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। কীভাবে এ গ্রুপ স্বাস্থ্য অধিদফতরের করোনা টেস্টের অনুমতি পেয়েছিল তা নিয়ে ব্যাখ্যা দিয়েছে স্বাস্থ্য অধিদফতর।

শনিবার স্বাস্থ্য অধিদফতরের সহকারী পরিচালক (সমন্বয়) ডা. জাহাঙ্গীর কবির স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, জেকেজি প্রতিষ্ঠানটির প্রধান সমন্বয়ক আরিফুল চৌধুরী ওভাল গ্রুপ লিমিটেড নামে একটি ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট গ্রুপেরও স্বত্ত্বাধিকারি। ওভাল গ্রুপ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় কর্তৃক আয়োজিত স্বাস্থ্য সেবা সপ্তাহ ২০১৮-এর ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের দায়িত্ব পালন করে।

চিকিৎসা পেশাজীবীদের সংগঠন বাংলাদেশ মেডিকেল এসোসিয়েশনেরও একাধিক ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের দায়িত্ব পালন করে। কোভিড সংকট শুরু হওয়ার পর উক্ত আরিফুল চৌধুরী স্বাস্থ্য অধিদফতরে আসেন এবং জানান যে, তিনি জোবেদা খাতুন হেলথ কেয়ার (জেকেজি) নামে একটি স্বেচ্ছাসেবী প্রতিষ্ঠানের প্রধান সমন্বয়ক।

‘জেকেজি গ্রুপ দক্ষিণ কোরিয়ার মডেলে বাংলাদেশে কিছু বুথ স্থাপন করতে চায়। এসব বুথের মাধ্যমে পিসিআর পরীক্ষা করার জন্য নমুনা সংগ্রহ করে স্বাস্থ্য অধিদফতরের পিসিআর ল্যাবরেটরিগুলোকে সরবরাহ করা হবে।

এ জন্য স্বাস্থ্য অধিদফতর বা সরকারকে কোন অর্থ দিতে হবে না। ধারণাটি ভালো এবং কোভিড পরীক্ষার নমুনা সংগ্রহ বৃদ্ধি করা প্রয়োজন এই বিবেচনা থেকে ওভাল গ্রুপের সঙ্গে কাজের পূর্ব অভিজ্ঞতা থাকায় জেকেজি গ্রুপকে অনুমতি দেয়া যায় বলে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় বা স্বাস্থ্য অধিদফতরের মনে হয়।’

আরও পড়ুন-

বিদ্যুতায়িত হয়ে মায়ের মৃত্যু, বেঁচে গেল কোলের শিশু

করোনায় চাকরি হারিয়ে তরুণীর আত্মহত্যা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *