বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে মায়ের মৃত্যু

বিদ্যুতায়িত হয়ে মায়ের মৃত্যু, বেঁচে গেল কোলের শিশু

বাংলাদেশ লিড নিউজ

গাইবান্ধার পলাশবাড়ী উপজেলায় বিদ্যুতায়িত হয়ে এক মায়ের মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু তার কোলের শিশু অলৌকিকভাবে বেঁচে গছে। শনিবার উপজেলার কিশোরগাড়ী ইউনিয়নের দিঘলকান্দি গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

হাতি দেখতে গিয়ে বাড়ির ছাদ থেকে পড়ে বিদ্যুতায়িত হয় গৃহবধু জাহানারা বেগম (৩৪)। এ সময় তার কোলে ছিল এক বছরের ছেলে শাহাদত। জাহানারার মৃত্যু হলেও অলৌকিকভাবে বেঁচে যায় ছেলে।জাহানারা বেগম ওই গ্রামের আবু মিয়ার মেয়ে ও হাফিজ রহমানের স্ত্রী।

আরও পড়ুন

অবৈধপথে ইতালি পৌঁছালেন ৩৬২ বাংলাদেশি

পলাশবাড়ী থানা পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) সঞ্জয় সাহা বলেন, তিন সন্তানের জননী জাহানারা বেগম কয়েকদিন আগে বাবার বাড়ি দিঘলকান্দি গ্রামে বেড়াতে আসেন। শনিবার সকালে বাড়ির সামনের রাস্তা দিয়ে হাতি যাচ্ছিল। জাহানারা কোলের সন্তানকে নিয়ে ওই হাতি দেখার জন্য বাবার বাড়ির পাশের নির্মাণাধীন দোতলা ভবনের ছাদে ওঠেন। হাতি দেখতে গিয়ে ছাদের পাশে গেলে পা পিছলে বাড়ির পাশ দিয়ে বয়ে যাওয়া পল্লী বিদ্যুতের তার আঁকড়ে ধরেন।

এতে বিদ্যুতায়িত হয়ে সন্তানসহ নিচে পড়ে যান তিনি। স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিলে চিকিৎসক জাহানারাকে মৃত ঘোষণা করেন। তবে ছাদ থেকে পড়েও বেঁচে যায় জাহানারার কোলের এক বছরের ছেলে সন্তান শাহাদত। শিশুটি বর্তমানে নিজ বাড়িতে সুস্থ আছে।

পাশাপাশি গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার করতোয়া নদীতে গোসল করতে গিয়ে পানিতে ডুবে রিতু খাতুন (১২) নামে এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে। শনিবার (১১ জুলাই) বিকেলে গোবিন্দগঞ্জ পৌর এলাকার বরনপুর গ্রামের করতোয়া নদীতে গোসল করতে গিয়ে রিতু খাতুনের মৃত্যু হয়। রিতু খাতুন ওই গ্রামের আবু বক্কর শেখের মেয়ে।

গোবিন্দগঞ্জ ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ইনচার্জ মতিউর রহমান বলেন, রিতু খাতুনসহ কয়েকজন করতোয়া নদীতে বিকেলে গোসল করতে যায়। এ সময় পানির স্রোতে ভেসে যায় রিতু। স্থানীয়রা ফায়ার সার্ভিসকে খবর দিলে মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

আরও পড়ুন-

করোনায় চাকরি হারিয়ে তরুণীর আত্মহত্যা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *